ভাই এসপি তাই আদালতে মামলা থাকা সত্বেও কৃষি জমির মাটি কাটার অভিযোগ

593

স্টাফ রিপোর্টার: ভাই এসপি তাই নারায়নগঞ্জ বিঙ্গ আদালতে মামলা থাকা সত্বে ও সোনারগাঁ ভাটিবন্দর এলাকায় জোড় পূর্বক মানবাধিকার কর্মীর কৃষি জমির মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ। সূত্রে জানা যায়, সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড ভাটিবন্দর মৌজা স্থীত বীর মুক্তিযোদ্ধা কৃষি ব্যাংক অফিসার মতিউর রহমানের স্ত্রী মানবাধিকার কর্মী জাহানারা বেগম সি এস, এস এ ৯৮ আর এস দাগে ১০৫ ও ১০৬ দাগে ৯/৬/২০১৬ সালে অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যটর্নি দলীল মূলে বত্রিশ শতাংশ জমি জাকির হোসেন গংদের কাছ থেকে ক্রয় করে। পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দলীল নং ৭২৬৫। ক্রয়কৃত জমি মানবাধিকার নেত্রী জাহানারা দীর্ঘদিন যাবত ভোগ দখল করে আসছে। জমির মালিকানা নিয়ে ভূয়া দাবীদার জাহানারার সাথে দাগ নাম্বার নিয়ে কিছুটা জামেলা চলে আসছে। উক্ত জমির জামেলা মিট করতে জাহানারা নারায়নগঞ্জ বিঙ্গ আদালতে ২০১৬ইং সালে মামলা করে। মামলা নং ৩৮৯। মামলা এখনো চলমান। তা সত্বে ও জমির নজর পড়ে একই এলাকার ভূমিদস্যু মৃত মাঈন উদ্দিনের ছেলে আবজালের। যে আবজালের ভাই ঢাকা রেন্জের এসপি পদে কর্মরত। ভাই এসপি তার দাপটে আবজাল এলাকার কিছু বখাটেদের সাথে নিয়ে জাহানারার চাষী জমি জবড় দখল করে নিয়েছে। সেই সাথে নারায়নগঞ্জ বিঙ্গ আদালতে মামলা থাকা সত্বে ও আবজাল ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা জোড়পূর্বক মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে। অথচ এসপির ভাই আবজালের কোন ওয়ারিশ সূত্রে মালিকানা নেই। নেই কোন দাবীদার। এলাকার সাধারন লোকের উপর আবজাল আতংকিত ব্যাক্তি। এসপির ভাই দাপটে ভাটিবন্দর এলাকায় দিনেরপর দিন চালিয়ে যাচ্ছে অত্যাচার নির্যাতন। মামলা হামলার ভয়ে তার অত্যাচারের মুখ খুলেনা সাধারন জনগন। থানায় অভিযোগ করলে হত্যা সহ খুন গুম করে ফেলব বলে জাহানারাকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আবজাল। অথচ এ আবজাল জাকির হোসেন হত্যার এজাহারভূক্ত আসামি ছিল বলে জানা যায়। আবজাল এলাকার ভয়ংকর একজন ব্যাক্তি। তার কাজই হচ্ছে নিরিহ লোকের জাগা জমি দখল করে নেয়া। এ ব্যাপারে আবজালের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তার অত্যাচার ও ভূমিদস্যুতা থেকে রক্ষা পেতে নারায়নগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট সাহায্য সহযোগীতা চেয়েছেন ভোক্তভোগী জাহানারা সহ তার পরিবার।