দীর্ঘ ২ বছর বন্ধ থাকার পর আবারও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চালু বিআরটিসি বাস

1001

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ ২ বছর বন্ধ থাকার পর আবারও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চালু হচ্ছে সরকারি নিয়ন্ত্রিত পরিবহন বিআরটিসি বাস সার্ভিস। এবার শুধুমাত্র এসি বাস চলবে। এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ ডিপোতে ১১টি বিলাসবহুল বাস সংযুক্ত হয়েছে। কাউন্টার সার্ভিস ভিত্তিক এবার বাসের টিকেটের মূল্য ৫৫ টাকা হলেও চাষাঢ়া থেকে ঢাকা যাওয়া যাবে ৫০ টাকায়। চলতি মাসে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে এ সার্ভিস চালু হবে আশা করা যাচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ বাস ডিপোর ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী জেড এ কামরুজ্জামান প্রতিবেদকের সাথে আলোচনায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।নারায়ণগঞ্জ নগরীর খানপুর এলাকায় বিআরটিসি ডিপোতে ব্যবস্থাপক হিসেবে প্রকৌশলী জেড এ কামরুজ্জামান যোগদান করেছেন চলতি বছরের ফেব্রুয়ারির ৭ তারিখে।
প্রকৌশলী জেড এ কামরুজ্জামান জানান, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গত ২ বছর ধরে নানা কারণে এ রুটে বিআরটিসি সার্ভিস বন্ধ রয়েছে যা খুব দুঃখজনক ব্যাপার। তাই এ রুটে পুনরায় বিআরটিসি বাস সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ রুটের জন্য বাসের চাহিদা ছিলো ২৫টি, তবে গত ৭ মে ১১টি বিলাসবহুল বাস ভারত থেকে আনা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আরও বাস আসবে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এ বাসের সিট সংখ্যা হচ্ছে ৫১টি। অত্যাধুনিক সব ধরনের সুবিধা আছে এসব বাসের মধ্যে। তিনি আরও জানান, চলতি মাসের ২২ তারিখের মধ্যে এ সার্ভিসের উদ্বোধনের কথা রয়েছে এবং এ সার্ভিসের উদ্বোধন করতে পারেন মাননীয় পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়াদুল কাদের। সরাসরি বিআরটিসি কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস চলবে বলে জানিয়েছেন কামরুজ্জামান।
তিনি বলেন, আগে নগরীর মেট্রো হলের মোড় থেকে বিআরটিসি বাস ছাড়ত তবে এবার মণ্ডলপাড়া পুল এলাকা থেকে ছাড়া হবে আর জনপ্রতি ভাড়া ৫৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে চাষাঢ়া থেকে উঠলে ৫০ টাকা করে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পথে ৪টি কাউন্টারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এগুলো হলো- মণ্ডলপাড়া, চাষাঢ়া, শিবুমার্কেট ও জালকুড়ি।
তিনি জানান, মণ্ডলপাড়া থেকে সার্ভিসটি চালু করা হলে একটু সমস্যা রয়েছে। ঢাকা থেকে আসার পর বাসটি চাষাঢ়া দিয়ে মণ্ডলপাড়া নিতে চাই। আমরা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মাননীয় মেয়রকে অনুরোধ করব, চাষাঢ়া দিয়ে বাস ঢুকতে সহায়তা করার জন্য। যদি না হয় তাহলে পূর্বের মত মেট্রো হল মোড় থেকে বাস ছাড়া হবে। তখন টিকেটের মূল্য হবে ৫০ টাকা।
যাত্রী সাধারণের প্রতি জেড এ কামরুজ্জামান বলেন, বিআরটিসি বাস সরকারি সম্পদ। এটি সুন্দরভাবে দেখে রাখার দায়িত্ব জনগণেরও। আশা করি সরকারি সম্পদ রক্ষার্থে জনগণ আমাদের সহয়তা করবেন। এবার ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস সার্ভিসটি চালু হলে আর বন্ধ হবে না।