“আপনি ঘৃণিত হবেন না, আপনি ঘৃণিত হলে আমরা লজ্জিত হই’’-নুর উদ্দিন

352

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ আপনি ঘৃণিত হবেন না, আপনি ঘৃণিত হলে আমরা লজ্জিত হই-নুর উদ্দিন। ০১লা জুলাই নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে এ কথা বলেন তিনি।
‘যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধীদের পাশে এসে দাঁড়ান। যেখানে প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল প্রতিবন্ধীদের একত্রিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। সেখানে জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রতিবন্ধীদের (বধির) জন্য দেওয়া জমির বরাদ্দ বাতিল করেছেন। আমি অনুরোধ করবো জমিটি আপনি ফেরতদেন। আপনি অনেক ভালো কাজ করেছেন। আরও একটি ভালো কাজ করে আমাদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকুন। সোমবার (১ জুলাই) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ কথা গুলো বলছিলেন আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর সভাপতি হাজী নুর উদ্দিন। নারায়ণগঞ্জ মুক ও বধির বিদ্যালয় এবং সংঘ এর আলোজনে মানববন্ধনটি হয়। মানববন্ধন থেকে ‘নারায়ণগঞ্জ মুক ও বধির বিদ্যালয় এর সরকারি অনুমোদিত জায়গা বরাদ্দের দাবি তুলে ধরা হয়।
এসময় হাজি নুর উদ্দিন বলেন, তৈমূর আলমের কারণেই ২০১১ সালে আপনি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগেও ২০০৩ সালে প্রথম পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার সময় অন্তরালে থেকে অ্যাড. তৈমূর আলম এই আইভীর জন্য কাজ করেছেন। তৈমূর আলম খন্দকার শুধু বধির সংগঠনেরই চেয়ারম্যানই নয়, তিনি এক সময় বিআরটিসির চেয়ারম্যানও ছিলেন। এর আগে তিনি ঠেলাগাড়ি, রিকশাওয়ালা সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের নেতা ছিলেন। আমিও তার সাথে যুক্ত থেকে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়েছি। এ ধরণের একজন মানুষ বধিরদের নিয়ে একটি সংগঠন করেছে। যে সংগঠনের লোক গুলো কথা শুনতে পারে না। অথচ, সাধারণ মানুষের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সেই আপনি আইভীই বধিরদের জন্য অনুমোদিত ৬০ শতাংশ জমির বরাদ্দ বাতিল করেছেন।
এর আগে বক্তারা বলেন, ফতুল্লার পঞ্চবটি এলাকায় অবস্থিতি একটি ৬০ শতাংশের জমি বধির স্কুল ও ট্রেনিং সেন্টারের জন্য অনুমোদন করেছিলো সরকার। স¤প্রতি সেই জমির বরাদ্দ বাতিল করে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী।
বিষয়টি নিয়ে মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান জানান, মানুষের পাশে দাঁড়ানোই মানুষের মৌলিক দায়িত্ব। অনেকেই সরকারের কাছে দাবি করেছে, বধিরদের জন্য যেন একটি স্থায়ী জমি দেওয়া হয়। আমরাও এ দাবির সাথে একাত্বতা ঘোষণা করছি। এবং অচিরেই যেন মানুষ গুলোর জীবনমান উন্নয়ন ঘটিয়ে সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকতে পারে। সেই কামনা করছি।