সোনারগাঁয়ে নদীখেকো আল-মোস্তফার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা তদন্তের নির্দেশ

413

স্টাফ রিপোর্টারঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের চিহ্নিত নদীখেকো আল-মোস্তফার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে নারায়নগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ‘ঘ’ অঞ্চল মামলাটি আমলে নিয়ে গুরুত্ব সহকারে সোনারগাঁ থানা পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, উপজেলার সোনারগাঁয়ের সাহাপুর গ্রামের মৃত. হাজী আ. গফুরের ছেলে আ. আজিজ বাদী হয়ে সোনারগাঁয়ের চিহ্নিত নদীখেকো আল-মোস্তফাকে হুকুমের আসামী করে এবং উপজেলার সাতভাইয়াপাড়া গ্রামের মৃত. আমিন উদ্দিনের ছেলে মোঃ হামিদুল্লাহ এবং একই গ্রামের আঃ হামিদের ছেলে শ্যামল হোসেনকে আসামী করে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে আরও জানা গেছে, আসামীরা চলতি মাসের ১২ তারিখে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আঃ আজিজের বাড়ীতে গিয়ে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। তাদের দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে আল-মোস্তফার নেতৃত্বে অন্যন্য আসামীরা আঃ আজিজকে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে।

এ বিষয়ে মামলার বাদী আব্দুল আজিজ জানান, আল-মোস্তফা সোনারগাঁয়ের চিহ্নিত ভ‚মিদস্যু ও নদীখেকো। তার বাহিনীর ভয়ে এলাকায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। আল-মোস্তফার বাহিনী প্রতিনিয়ত প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে এলাকায় মহড়া দিচ্ছে। চাঁদা না পেলে তারা জোরপূর্বক এলাকার শত শত কৃষকের কৃষি জমি দখল করে ও নদী দখল করে নিচ্ছে। আশা করি আমি আদালতের মাধ্যমে মামলা করে ন্যায়বিচার পাবো।

মামলার বিষয়ে আঃ আজিজের আইনজীবী মোহাম্মদ কামাল হোসেন জানান, ভুক্তভোগী আঃ আজিজ আল-মোস্তফাসহ তিনজনকে আসামী করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী “ঘ” অঞ্চল আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে গুরুত্ব সহকারে সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। যার মামলা নং- ১৫৩/২০১৯.