ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাসীরা ফের বেপরোয়া

654

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: আসন্ন ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে আবারো শিল্পাঞ্চলখ্যাত সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাসীরা সক্রিয় হয়ে উঠছে। সম্প্রতি সময়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক প্রত্যাহার হওয়ার সুযোগে মাদক, ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজসহ নানান পেশার অপরাধীরা এলাকায় মহড়া দিচ্ছে। সবচেয়ে বেশী সন্ত্রাসীদের দাপট লক্ষ্য করা গেছে আদমজীর সুমিলপাড়া, এসও, বার্মাশীল এলাকায়। আদমজীতে ইপিজেড থাকায় এবং ইপিজেডে একক সন্ত্রাসীদের আধিপত্যের কারনে বারংবার সন্ত্রাসমূলক কর্মকান্ড আশপাশ এলাকায়ও ছড়িয়ে পড়ছে বলে দাবি এলাকাবাসীর। এদিকে ঈদুল আযহাকে ঘিরে মাদক ব্যবসায়ীরাও রয়েছে বেশ সাচ্ছন্দে। ঈদে একটি বড় মাপের ব্যবসার পরিকল্পায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মাদকের একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট। খোজখবর নিয়ে জানাগেছে, আদমজী ইপিজেট এর নব্য সন্ত্রাসী আক্তার ওরফে পানি আক্তার তার দলবড় নিয়ে এলাকায় মহড়া দিচ্ছে সকাল- বিকাল ও রাতের মধ্যভাগে। শরীফ রায়হান নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, রাত নাই দিন নাই আক্তার ওরফে পানি আক্তার ও তার বাহিনী নিয়ে এলাকায় মহড়া দেয়। এই বাহিনীর ভয়ে এলাকাবাসী তটস্ত। প্রশাসনের সঠিক নজরদারি জোড়দার হলে এই বাহিনী থেকে এলাকাবাসীর মুক্তি মিলবে। সম্প্রতি পানি আক্তার বাহিনী ইপিজেডে নারী শ্রমিকদের ইভটিজিং করায় এলাকাবাসীর গণপিটুনী খেয়ে থানা পুলিশের হাতে ধরা খেয়েছে। তার পরেও এ বাহিনী আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৬ নং ওয়ার্ড এর সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডল এ বাহিনীর অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবার করায় তার বিরুদ্ধেও এরা উঠেপরে লেগেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবিষয়ে সিরাজুল ইসলাম মন্ডল বলেন, অন্যায়কারীরা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন অন্যায় করলে কোন ছাড় দেয়া হবে না। প্রতিবাদ করবই। তাদেরকে থানা পুলিশের সহযোগীতায় আইনে তুলে দেয়া হবে।
এদিকে ঈদুল আযহাকে ঘিরে সকল ধরনের নিরাপত্তা নিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন। চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, ছিনতাই রোধে জেলা পুলিশের সকল প্রকার পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নারায়গঞ্জ জেলা পুলিশ।