ফতুল্লায় মাদ্রাসার শিশু’র গোপনাঙ্গ জখমের ঘটনায় প্রিন্সিপাল গ্রেফতার

421

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ ফতুল্লায় দারুস সালাম কওমী মাদ্রাসার ৫ বছরের শিক্ষার্থী সালেহিন কাদির সিহামের পুরুষাঙ্গ জখম ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনায় মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মোঃ মান্নান (৪০) কে গ্রেফতার করেছে ফতুলা থানা পুলিশ। সোমবার দুপুরে ফতুলা থানার পশ্চিম দেওভোগস্থ দারুস সালাম কওমি মাদ্রাসা হতে একে গ্রেফতার করে ফতুল্লা থানা পুলিশ। ধৃত মান্নান সুদুর শরিয়ত পুর জেলার পালং থানার সিরাজুল হকের ছেলে। জানা গেছে, বন্দর থানাধীন ১ নং নয়ানগরস্থ কাউসার আহমেদের ছেলে সিহাম ঐ মাদ্রাসার মকতব বিভাগে নুরানীতে পড়াশুনা করত । তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসার শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ও প্রিন্সিপাল মান্নানসহ ২/৩ জন তাকে প্রায়ই মার ধর করত। এরই ধারাবাহিকতা গত ২রা আগস্ট রাত ৯ টায় রফিকুল ও প্রিন্সিপাল মান্নান সিহামকে বেত দিয়ে বেধরক মারপিট করে। এক পর্যায়ে তারা রফিকুল শিশুটির পড়নো পায়জামা খুলে তার পুরুষাঙ্গে সজোরে আঘাত ও টানাটানি করতে থাকে। এতে তার গোপনাঙ্গে অগ্রভাগে মারাত্মক জখম ঘটে। এতে সিহাম চিৎকার করতে থাকলে পাষন্ড প্রিন্সিপাল তার বাম পায়ে মোচড় দিয়ে হাড় ভেঙ্গে দেন। খবর পেয়ে শিশুটির বাবা মাদ্রাসায় এসে শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করে এবং পরবর্তীতে ফতুল­া মডেল থানায় এসে একটি মামলা দায়ের করেন৷ যার নং ১১(০৮)১৯ইং। পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় ২ নং আসামীকে গ্রেফতার করা হলেও মূল আসামি ও তার সহযোগীরা পলাতক রয়েছে। আশা করি অচিরেই আমরা তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনবো।