৫ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধষর্ণ

467

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সোনাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ওই স্কুলের দপ্তরী মনির হোসেন (২৫) ধষর্ণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বুধবার সকালে স্কুলের একটি কক্ষে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর ওই ছাত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে শনিবার সকালে এ ঘটনা প্রকাশ পায়। ঘটনা প্রকাশের পর অভিযুক্ত দপ্তরী মনির হোসেন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে উঠেপড়ে লেগেছে ওই এলাকার প্রভাবশালীরা।
এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সন্ধ্যায় সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সোনাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে স্কুলে যায়। এসময় ওই স্কুলে কোন শিক্ষার্থী বা শিক্ষক উপস্থিত হয়নি। এ সুযোগে ওই স্কুলের দপ্তরী ও একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে মনির হোসেন ওই ছাত্রীকে কৌশলে স্কুলের একটি কক্ষে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় ওই ছাত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে স্কুল থেকে চলে যায়।
শনিবার সকালে ঘটনাটি তার চাচির কাছে প্রকাশ করে স্কুল ছাত্রী। পরে তাকে একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ঘটনা প্রকাশের পর ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
ধর্ষিতা ছাত্রী জানায়, বুধবার সকালে আমি স্কুলে যাই। ওই সময়ে কেউ স্কুলে আসেনি। আমাকে দপ্তরী মনির হোসেন স্কুলের একটি কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। আমি অসুস্থ্য হলে ঘটনাটি চাচিকে বলি। দপ্তরী আমাকে এ ঘটনা জানাতে বারণ করেছে। আমি জানালে ক্ষতি হবে বলে হুমকি দিয়েছে।
সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। অভিযুক্ত দপ্তরীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।