সকল ভালো কাজেই সমালোচনা আছে- এএসপি সুবাস

398

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুবাস চন্দ্র বলেছেন,সকল ভালো কাজেই মানুষ সমালোচনা করে। কিন্তু এতে করে ভালো কাজ গুলো থেমে থাকে না। সমাজের সমালোচকরা একদিন ঠিকই এর  মর্মার্থ বুঝতে পারে। তাই ভীত হবেন না। ভালো কাজগুলো চালিয়ে যাবেন। আজকে এই যে প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এটা নিয়েও অনেক সমালোচনা হয়েছে। কিন্তু এতে সমাজের অপকার তো হচ্ছে না। বরং এই উদ্যোগটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সোনার বাংলা গড়ার সাথে অংশিদারের শামিল। অতএব সমালোচনা নয় পারলে তাদের সহয়তা করুন। অটিজমদের অবহেলা না করে তাদের পাশে দাড়ান। তারাও আপনার মত রক্তে মাংসে গড়া মানুষ। তাদেরও সমাজের কাছে অধিকার আছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বন্দর থানাধীন ফরাজিকান্দাস্থ হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারের ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে “অটিজম সেবায় বাংলাদেশ “শীর্ষক আলোচনা সভার প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, প্রধাণমন্ত্রীর সুযোগ্যা কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল অটিজমদের নিয়ে যে কাজ করেছে তা আজ বিশ্বে প্রশংসনীয়। এর জন্য তিনি এওয়ার্ড জিতে নিয়েছেন।প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনা অটিজমদের বিশেষ সুবিধা দিয়েছেন। তাদের কোন অংশে তিনি অবহেলা করেননি বরং তাদের অধিকার প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছেন৷  আমার শুনতে ও দেখতে ভালো লাগে যে এই রকম অজপাড়া গাঁয়ে  প্রতিবন্ধীদের নিয়েও কাজ করে। যাই হোক আমি আপনাদের একাডেমির সাফল্য কামনা করি । আমি চাই ভবিষৎ-এ যেন এটা জাতীয় পর্যায়ে ভালো সুনাম করতে পারে।  সেই কামনাই করছি।

হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ হাসিনা রহমান সিমুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে  উপস্থিত ছিলেন, বন্দর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আজহারুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে শিক্ষানুরাগী শ্যামল দত্ত, লুৎফা বেগমসহ হাসিনা চাইল্ড কেয়ার একাডেমির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অন্যান্য কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।