মাদক ব্যাবসায় বাঁধা দেয়ায় হামলা,আহত-৭

251

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেওয়ায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সন্মানদী ইউনিয়নের মগবাজার গ্রামে আক্তার,মালেক,রফিক আরিফ নামে ব্যক্তিদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

এঘটনায় গতকাল শুক্রবার আহত আরিফ বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এলাকাবাসীরা জানান,উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের নাজিরপুর এলাকায় মৃত মোজাফ্ফর হোসেনের ছেলে হাবিবুল্লাহ মগবাজার এলাকায় তার মালিকানাধীন মার্কেটের একটি দোকান ঘর ভাড়া দেন সামসুদ্দিনের ছেলে ব্যবসায়ী আলমগীরের কাছে। সম্প্রতি হাবিবুল্লাহ ভাড়া দেয়া দোকান আলমগীরকে মাদক ব্যবসার অভিযোগ এনে ছেড়ে দিতে বলে। এতে আলমগীর মনে করে পার্শ্ববর্তী মালেকের কথায় হাবিবুল্লাহ তাকে দোকান ছাড়তে বলেছে। এতে আলমগীর ক্ষিপ্ত হয়ে মালেককে বকাঝকা করে। পরে সন্ধ্যার দিকে মালেক ও তার ভাতিজা আরিফ আলমগীরের দোকানে গিয়ে তাকে বকাঝকা করার কারন জিঙ্গেস করলে আলমগীরের সাথে তাদের তর্ক হয়। এর জের ধরে আলমগীর তার ভাই গোলজার, দিন মোহাম্মদ, দুলাল, সোহেল, আলম, নয়ন, আমির হোসেন, সাইদুর, এবাদুল্লাহ, আসাদুল্লাহ ও শাহাদাতসহ তাদের গোষ্টির আরো কয়েকজন মিলে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মালেকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মালেক, আরিফ, আক্তার ও লতিফকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। আহত ৪ জনকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। এদিকে, এ হামলার খবর পেয়ে মালেকে স্বজনার আলমগীরের বাড়িতে হামলা চালালে সেখানে তিনজন আহত হয়। এ ঘটনায় দুই পক্ষই সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে আহত মালেক জানান, মাদক ব্যবসায়ী আলমগীর ও তার গোষ্টির লোকজন মিথ্যা অভিযোগ এনে আমাদের উপর হামলা করে ৪ জনকে কুপিয়ে আহত করেছে।আহত ৪জনকে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, সনমান্দি এলাকার হামলার ঘটনায় অভিযোগ নেয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।