গ্যাস চুরির দায়ে ৪জনকে জরিমানা ও সাজা

330

আশিকুজ্জামানঃর‍্যাব-১১ এর অভিযানে কোটি টাকার গ্যাস চুরির দায়ে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশন বন্ধ। ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ৪জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা।র‍্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের  বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‍্যাব শুরু থেকে যে কোন ধরনের অপরাধ, প্রতারনামূলক অপরাধ প্রতিরোধ এবং সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রকে সনাক্ত ও গ্রেফতারের জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে রাত ১০ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত র‍্যাব-১১ এর এক বিশেষ আভিযানে মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানাধীন বালুয়াকান্দি এলাকায় “”রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং  স্টেশনে” মিটারে জালিয়াতির মাধ্যমে অভিনব কৌশলে গ্যাস চুরির দায়ে ১। ইঞ্জিনিয়ার অঞ্জন কুমার (৩০), ২। ম্যানেজার মোঃ মানিক (৫৫), ৩। কর্মচারী মোঃ রাসেল (২৪) ও ৪। কর্মচারী শহিদুল ইসলাম (২৬)’কে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে দোষী সাব্যস্থ করে তাদের’কে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড এবং ফিলিং স্টেশন’কে ০১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। পরে তিতাস গ্যাস কোম্পানী কর্তৃক উক্ত রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশনের গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশনের ইঞ্জিনিয়ার অঞ্জন কুমার এবং মালিক জাহিদ হাসান ও মুকুল গং পরস্পর যোগসাজসে তিতাস গ্যাস কোম্পানীর প্রদত্ত মিটারের অগ্রভাগে বিশেষ ছিদ্র করে লোহার সরু তার প্রবেশ করে মিটারের পাখার গতিকে শ্লথ করে দিয়ে অভিনব কৌশলে গ্যাস চুরি করে আসছে। এইভাবে প্রায় ৪ বছর ধরে রাষ্ট্রায়ত্ত¡ কোম্পানী তিতাসের গ্যাস চুরি করে বিভিন্ন পরিবহন ও কোম্পানীর কাছে গ্যাস বিক্রি করে আসছে। এই কৌশলে গ্যাস বিহীন বিভিন্ন কোম্পানী’কে অবৈধভাবে গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি কাভার্ড ভ্যানের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহ করে আসছিল। বিআরটিসি ও অন্যান্য অনেক কোম্পানীর পরিবহনে মাসিক চুক্তিতে লক্ষ লক্ষ টাকার চোরাই গ্যাস বিক্রি করে আসছে। রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশনের কয়েক মাসের বিল পর্যালোচনা করে দেখা যায়, তিতাস গ্যাস কোম্পানী’কে মাসিক গড় বিল দেয় মাত্র ৭০ লক্ষ টাকা। কিন্তু নভেম্বর মাসে শুধু সিপি বাংলা নামক একটি কোম্পানীতে সিলিন্ডার ভর্তি কাভার্ড ভ্যানে গ্যাস বিক্রি করে ৭৯ লক্ষ টাকার। এছাড়াও ২৪ ঘন্টা বিভিন্ন পরিবহনে গ্যাস বিক্রি করে আসছে। এভাবে রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশন মাসিক কোটি টাকার অধিক গ্যাস চুরি করে আসছে। বিগত ৪ বছর যাবৎ প্রায় শত কোটি টাকার গ্যাস চুরি করে রাষ্ট্রায়ত্ত¡ সম্পত্তির ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে আসছে।

এই জালিয়াতি চক্রের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে সংঘঠিত অপরাধ আমলে নিয়ে মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম ইমাম রাজী টুলু, সহকারী কমিশনার (ভূমি), গজারিয়া, মুন্সীগঞ্জ। বাংলাদেশ গ্যাস আইন-২০১০ এর ১০ (ক) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশনের ইঞ্জিনিয়ার অঞ্জন কুমার’কে ০২ মাস, ম্যানেজার মোঃ মানিক’কে ০১ মাস, কর্মচারী মোঃ রাসেল’কে ০১ মাস এবং কর্মচারী শহিদুল ইসলাম’কে ০১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয় এবং রংধনু সিএনজি এন্ড ফিলিং স্টেশন’কে ০১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। তিতাস গ্যাস কোম্পানী তাদের প্রদত্ত মিটার খুলে নেয় ও ফিলিং স্টেশনের গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়।