যথাযথ মর্যাদায় উদযাপিত হলো শাহী মসজিদ যুব সমাজের উদ্দ্যোগে মহান বিজয় দিবস

415

মাহমুদুল হাসান:১৬ ই ডিসেম্বর ৪৮ তম মহান  বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে শাহী মসজিদ যুব  সমাজের উদ্দ্যোগে মহান বিজয়ের স্বাদ উপভোগ করার জন্য  দিনব্যাপী ক্রীড়া প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। বন্দরের এতিহ্যবাহী শাহী মসজিদস্থ বন্দর ইসলামিয়া ফাযিল মাদরাসার মাঠ প্রাঙ্গনে সকাল ১০ টায়  অনুষ্ঠিতব্য ক্রীড়া প্রতিযোগীতার মধ্যে দৌড়, ছেলেদের ঐতিহ্যবাহী মোরগ লড়াই, মেয়েদের মিউজিক্যাল চেয়ার, যেমন খুশি তেমন সাজো।  আকর্ষনীয় খেলার মধ্যে ছিল  পাতিল ভাঙ্গা। এই খেলায় প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতাসহ এলাকার ছোট থেকে শুরু করে সব বয়সের মানুষ সতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহন করে। ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় প্রধান আকর্ষন ছিল ডিগবল টুর্নামেন্ট। সন্ধা ৭ টায় ডিগবল টুর্নামেন্ট খেলায় অংশগ্রহন করে শাহী মসজিদ অগ্রদূত ক্লাবের ছোটদল ও বড় দল। ছোট দল ২-০ গোলে বিজয়ী হয়। ডিগবল টুনামেন্টে পরিচালনা করেন যুবলীগ নেতা শামসুল হাসান ধারা বিবরনী তুলে ধরেন যুবলীগ নেতা সালাউদ্দিন। ক্রীড়া প্রতিযোগীতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে নারায়নগঞ্জ ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব আবদুল হান্নান সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন্দরের অহংকার নারায়নগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির আহŸায়ক আলহাজ্ব আবুল জাহের চেয়ারম্যান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা ছাত্রলীগ সভাপতি ও বন্দর ইসলামিয়া ফাযিল মাদরাসার সভাপতি নাজমুল হাসান আরিফ , শাহী মসজিদ পঞ্চায়েত কমিটিরি সেক্রেটারী আমিনুল ইসলাম , সিকদার আ: মালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মো: সালাউদ্দিন, ৯ নং বন্দর কলোনী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হালিম , একরাম পুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: জাকির হোসেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা ছাত্রলীগের ক্রীড়া সনম্পাদক মাইনুদ্দিন মানু, ২১ নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগ সেক্রেটারী আল মামুন, বন্দর পৌর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি রাশেদুল কাদির,  হাজী মো: আলী আক্কাস পিন্টু, হাজী মো: তারেক, বিশিষ্ট সমাজ সেবক শাহজাহান লিটনসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। আলহাজ্ব আবুল জাহের তার প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন ১৬ ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস । বাঙ্গালীর জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জনের দিন এটি। আমরা শ্রদ্ধাভরে স্মরন করি যাদের জন্য আমরা এই বিজয় অর্জন করতে পেরেছি। আলহাজ্ব হান্নান সরকার তার বক্তব্যে বলেন ‘‘ ১৬ ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের দিনটিতে আমাদের সবার কাছে খুব ভালো লাগে। কেননা আমাদের এই বিজয় আমরা এমনি এমনিই পাই নি। বহু ত্যাগ তিতিক্ষায় পেয়েছি। তাই এই বিজয় আমাদের কাছে মহা মুল্যবান। শাহী মসজিদ যুব সমাজের উদ্দোগে আয়োজিত বিজয় দিবস উদযাপনে এসে আমি সেই ১৯৭১ সালের বিজয়ের দিনের উল্লাস পেয়েছি। তিনি অত্র এলাকার যুব সমাজকে উৎসাহিত করে বলেন আগামী ২৬ শে মার্চ যাগজোমক পূর্ণ ভাবে পালন করার জন্য আহবান জানান।  ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল হাসান আরিফ তার বিশেষ  অতিথির বক্তব্যে বলেন আমাদের জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের অবদান এবং বাঙ্গালী জাতীর তীব্র সাহস , দেশের প্রতি ভালোবাসা এবং ঐক্যবদ্ধতার জন্য আমরা আজকের এই দিন পেয়েছি। আজকে বিজয়ের দিন। আমাদের ভাই বোনেরা রক্ত দিয়ে স্বাধীন করেছে এই দেশ। এই দিনে বাংলার আকাশে বাতাসে ধ্বনিত হচ্ছে ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’। বিজয়ের গৌরবে গৌরাবান্বিত হয়ে শাহী মসজিদ যুব সমাজের এই বিজয় উদযাপন এলাকাবাসী সাধুবাদ জানিয়েছেন।