সন্ত্রাসীরা কৃষি জমির মাটি বিক্রি করছে ইটভাটায়

345

আশিকুজ্জামানঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জামপুর ইউনিয়নে মেম্বার বদরুজ্জামান বদু’র নেতৃত্বে সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীর মহড়ায় জোরপূর্বক ফসলী জমির মাটি কেঁটে বিক্রি করছে ইটাভাটায়।

এলাকাবাসী অভিযোগে করে বলে, স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার বদরুজ্জামানের নেতৃত্বে পেরাবো গ্রামের আম্বর আলীর ছেলে সালাউদ্দিন, সুলতানের ছেলে সজিব, সগির আহম্মেদের ছেলে ফয়সাল সহ ২৫-২৬ জনের একটি সিন্ডিকেট জামপুর ইউনিয়নের কাহেনা মৌজার বেলাবো ও কাহেনা এলাকার কৃষকদের ফসলী জমির মাটি জোরপূর্বক কেঁটে নিয়ে পাশের উপজেলা রূপগঞ্জের মাসাবো, বরপা ও স্থানীয় সিংলাবো এলাকার ইটাভাটায় বিক্রি করে দিচ্ছে।

জমি মালিকরা সন্ত্রাসীদের ভয়ে তাদের নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানায়, অত্র বেলাবো ও কাহেনা গ্রামের মানুষের একমাত্র যাতায়াতের পথ হচ্ছে পেরাবো। তাই, সব সময়ই এ এলাকাকার মানুষ তাদের জিম্মিদশায় জীবন-যাপন করতে হয়।তারা জানান, এখন আমাদের জমির মাটি কেঁটে নিচ্ছে স্থানীয় ইউপি মেম্বার বদরুজ্জামান বদু’র সশস্ত্র বাহিনী। তা তো স্বাভাবিক ঘটনা। এতে প্রতিবাদ করলেই বাড়ী-ঘরে চলবে সন্ত্রাসী তান্ডবলীলা। এ কারণে এখানকার মানুষ তাদের ভয়ে সব সময়ই থাকে আতংকে।

এখানকার কৃষকরা কৃষি ফসলের ওপর জীবিকা নির্ভরশীল। এসব ফসলী জমি গুলো কেঁটে নিলে কৃষক পরিবার গুলোর জীবন-জীবিকা নির্বাহে চরম ভোগান্তির শিকার হবে। এমতাবস্থায়, শেষ ঠিকানা হিসেবে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ জরুরী ভিত্তিতে কামনা করছেন এলাকাবাসী।

জামপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার বদরুজ্জামান বদু বলেন, আমি কৃষকদের ন্যায্য দাম দিয়ে মাটি কিনে ইটভাটায় বিক্রি করছি।

সোনারগাঁও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মনিরা আক্তার জানান, কৃষি জমির টপসয়েল কেটে ইটভাটায় বিক্রি করার ফলে মাটির উর্বরতা শক্তি হারিয়ে চাষাবাদের অযোগ্য হচ্ছে। ভবিষতে হুমকির মুখে পড়বে সোনারগাঁয়ে কৃষি ও কৃষি পরিবারগুলো।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রকিবুর রহমান খান বলেন, অত্র এলাকার কৃষি জমির মাটি কাটার বিষয়টি তদন্ত করে অতিদ্রুত আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।