রাসূলের বিরুদ্ধে কথা বল্লে কল্লা ফালায় দিবো-শামীম ওসমান

364

স্টাফ রিপোর্টারঃ আমি মুসলমান। আমার বিরুদ্ধে অনেকে অনেক কথা বলে। তারা বলে শামীম ওসমান বলেছে রাসূলের বিরুদ্ধে কথা বল্লে কল্লা ফালায় দিবো। আমি একবার না একশবার বলেছি রাসুলের বিরুদ্ধে কথা বল্লে কল্লা ফালায় দিমু। তোমার ধর্ম তুমি করো। ধর্ম নিয়ে বারা বারি কইরো না। যার যার ধর্ম তার তার কাছে। একটি মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলে।

সাংসদ শামীম ওসমান আরও বলে, আমি ভন্ড কথা বলি না। কোরআন খুলে দেড় ঘন্টা পরেছি। কাদিয়ানীর ব্যাপারে ওনারা (আলেম) সত্য কথা বলেছে। আমি ওনাদের বলেছি যে কারনে কাদিয়ানীদের অমুসলিম বলছেন সেটা আমাকে একটু দেন। বই পুস্তক গুলো একটু দেন আমি পড়ি। আমি বললাম আর কাদিয়ানী অমুসলিম হয়ে গেলে সেটা তো হলো না। কাদিয়ানী কবে মুসলিম হইছে তাও অনেকে বলতে পারে না। তাই আপনাদের জানতে হবে কাদিয়ানী সর্ম্পকে। আমি ওনাদের (আলেম) বলেছি বই পুস্তক দেন পড়ি। তারপর আমাকে আপনাদের বলতে হবে না। আমার ঠেকায় আমি বলবো কাদিয়ানী নিয়ে।

শামীম ওসমান বলে, শ্রমিকের মাথার ঘাম পাঁয়ে পরার আগে তার মজুরি পরিশোধ করো। নারীদের সম্মান দাও। নারীর উপর তোমার অধিকার আছে। তোমার উপর নারীর অধিকার আছে। এই একটা ছোট ভাষণ আল্লাহর রাসুলকে শুনো। তাহলে সব ঠিক হয়ে যাবে। তুমি ধর্ম মানো না, আল্লাহকে মানো না, রসুলকে মানো না সেটা তোমার ব্যাপার কিন্তু তুমি আমার ধর্ম ইসলামকে নিয়ে আমার রাসুল নিয়ে কথা বলবা এটা মেনে নেব না। কাদিয়ানী এসেছে ব্রিটিশ থেকে।

তিনি বলেন, একটা কথা বলি বিশ্ব ইজতেমায় মারা মারি হয় কেন। আমার মাদানি নগরের শতশত ছেলে রক্তাত হয়ে আসে কেন। ইসলাম হলো শান্তির ও রহমতের ধর্ম। কোন ধর্মে আছে এ রকম? কেউ বলে নামাজ এমনে পরো কেউ বলে ওমনে পরো। আমি জানি আমার আল্লাহ আছে। যুবকদের বলবো কোরআন পড়ো একবার নয় বার বার পড়ো।