বাসে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণের মামলায় তিনজনের রিমান্ড

362

স্টাফ রিপোর্টারঃ রূপগঞ্জে চলন্ত বাসে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তিনজনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

(২ ফেব্রুয়ারি) রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে প্রধান আসামি গাড়ি চালক জসিম উদ্দিনের ২ দিন ও তুহিন ও খলিলের ১ করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডকৃতরা হলো রূপগঞ্জের তাজ উদ্দিন মোল্লা বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুল রাজ্জাকের ছেলে জসিম উদ্দিন (৪০), বরপা এলাকার মনোয়ার গাজীর ছেলে তুহিন (২৫) ও একই এলাকার মিয়া বাড়ির কফিল উদ্দিনের ছেলে খলিল (৫৮) ।

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মোঃ আসাদুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানায়, পুলিশ মামলার অধিকতর তদন্তের স্বার্থে গ্রেপ্তারকৃত তিনজনকে ৭ দিন করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে আদালত ওই আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, ধর্ষণের শিকার ওই নারী সোনারগাঁ উপজেলার মদনপুর এলাকার একটি গার্মেন্টস অপারেটর। গত ১৫ ডিসেম্বর রাত প্রায় নয়টার দিকে গার্মেন্ট ছুটি শেষে জসিম উদ্দিন চালিত (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-১৪১১) গাড়িতে করে অন্যান্য সহকর্মীদের সাথে বাড়ি ফিরছিলো।

পথে তার সহকর্মীরা নেমে গেলে গাড়িতে সে একা থেকে যায়। এই সুযোগে চালক জসিম উদ্দিন তার হেলপার দিপনসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনের সহযোগিতায় চলন্ত গাড়িতে ওই নারীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ওই ঘটনাটি তুহিন, খলিল, টাইগার ও জনিসহ আরও কয়েকজন দেখে। এবং বিষয়টি আপস মিমাংসার করে দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণের শিকার নারীর কাছে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

এসময় ভুক্তভোগি নারী তার মেয়ে (১৪) এর মাধ্যমে ঘর থেকে ১ লাখ ৭ হাজার টাকা এনে তাদেরকে দেয়। পরবর্তীতে এর সুরাহ না করেই তারা কালক্ষেপন করতে থাকলে পরে ভুক্তভোগি ওই নারী ঘটনার দেড়মাস পর রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে।