কমলগঞ্জে চুরির অভিযোগে ২ শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

434

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ইসলামপুর ইউপির কুরমা চা বাগানে চুরির অপবাদ দিয়ে ১২ ও ১৩ বছরের দুই কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় ও নির্যাতিতদের পরিবার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে চুরির অপবাদ দিয়ে মামুন নামে বাগানের এক কর্মচারী দুই কিশোরকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর পঞ্চায়েত সভাপতি নারদ পাশিসহ কয়েকজন মিলে তাদের সকাল ৭টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত খোলা আকাশের নিচে পিছনে হাত নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে।

এক কিশোরের মা জানান, ইউপি সদস্য দীপেন সাহা সামনে থেকে তাদের পিটিয়েছেন। সঙ্গে ছিল চা বাগান পঞ্চায়েতের সভাপতি নারদ পাশি, শাহাদত হোসেন, সাদেকসহ অনেকে। বিকাল ৩টায় ছেলেদের অভিবাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। তাদের অবস্থার অবনতি হলে বিকাল ৪টায় কমলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে তারা থানায় মামলা দায়ের করবেন।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য দীপেন সাহা বলেন, ছেলেদের বেঁধে রাখা হয়েছিল। তবে নির্যাতন করা হয়নি, কয়েকটি চড়-থাপ্পড় দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পরে বিকাল ৩টার পর অভিবাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান জানান, মোবাইল চুরির জন্য তাদের আটকানো হয়েছিল, তবে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেল) আশরাফুজ্জামান জানান, তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছেন।