যুদ্ধকালীন কমান্ডার মো.আমিনুর রহমান এর স্মরণে দোয়া ও মিলাদ মাহ্ফিল

428

নিজস্ব প্রতিবেদকবাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা এর আয়োজনে করোনা মহামারীতে শহীদ সকল মুক্তিযোদ্ধা সহ সদ্য প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা যুদ্ধকালীন কমান্ডার মো.আমিনুর রহমান এর স্মরণে আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার ১০ জুলাই বাদ আসর নারায়ণগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে এ অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমান।

সেলিম ওসমান তার বক্তব্যে সাংবাদিকদের উদ্যোশ্য বলেন,খোঁচাখুচি কইরেননা করোনা কিভাবে দূর করা যায় তা নিয়ে লিখেন। যারা দূর্নীতি বাজ তাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধারা সব সময় কাজ করে যাবে।
নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে সিটি কর্পোরেশন কে নিয়ে বসতে হবে।কেননা ৭০% ভোট আমার ও মেয়রের। প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমানের আত্নার মাগফেরাত কামনা করে বলেন,উনি ঠান্ডা পানিতে গোছল করতেন। না করতাম!ভেবেছেন ঠান্ডা লেগেছে সেরে যাবে।মহান আল্লাহ তাকে বেহেস্ত নসীব করুন ।
হার্টের রোগী মুমূর্ষু অবস্থা ছিল ডাক্তারা তখন সর্বত্র চেষ্ঠা করেছিল বাচানোর জন্য কিন্তু রুগীটাকে বাচানো যায় নাই। পরে রোগীর স্বজনরা ডাক্তারদের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তাই ডাক্তারদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য নিরাপত্তা চাইলেন জেলা প্রশাসকের কাছে। তিনি আরোও বলেন কিভাবে করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়  তা নিয়ে লেখা লেখি করেন। আমরা দুর্নীতি মুক্তি ও করোনা জন্য আমরা মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধ করে যাব। আমার মুক্তিযোদ্ধা ভাইয়েরা যেন সচেতন হয়ে চলাফেরা করেন। প্রয়োজনে আমরা আপনাদের জন্য ৮ টা বেড রাখবো।

জেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডা মোহাম্মদ আলী তার বক্তব্যে বলেন আজকে আমিনুর রহমান আমাদের মাঝে নেই তার স্মরণে রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার, বন্দর বিভিন্ন জায়গায় দোয়ার আয়োজন করেছি। জেলার মুক্তিযোদ্ধা দের যত সমস্যা অনুষ্ঠানের আয়োজনে শলাপরামর্শ সঙ্গী হিসাবে বুদ্ধি দিতেন। আজ আমাদের মাঝে তিনি নেই। এই অনুষ্ঠানে এমপি মহোদয়সহ সকলের কাছে তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। আলোচনা সভায় জেলা সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা বারিক, জেলা ডিপুটি কমান্ডার এড.নূরুল হুদা, সাবেক কমান্ডার সামিউল্লাহ মিলন, সদর কমান্ডার শারজাহান ভূঁইয়া জুলহাস, দেলোয়ার হোসেন দুলু, নূর আলম,মহউদ্দিন,আফজাল হোসেন, রমিজ উদ্দিন, শের মোহাম্মদ, মো.হোসেন, সামসুল হক, মাহামুদ হারুন, তোফাজ্জল হোসেন তপু প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক জসিমউদদীন বলেন,আমিনুর রহমান সহ মরহুম সকল মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরন করছি।করোনা টেষ্টের জন্য আপনাদের ২শ করে টাকা দিতে হবেনা।যে কোন বিষয়ে আপনারা আমার সরাসরি কথা বলবেন।
পরে মৃত সকল মুক্তিযোদ্ধাদের আত্নার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।