হত্যা চেষ্টা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী আমিন গ্রেফতার

46

স্টাফ রিপোর্টারঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুলিশের উপর হামলা করে আসামী ছিনতাইয়ের কাজে জড়িত ০৩ জন সহ ছিনিয়ে নেওয়া হত্যা চেষ্টা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী

মোঃ আমিনকে র‌্যাব-১১ কর্তৃক গ্রেফতার করে।

র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধের উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতার, অপরাধ দমন ও আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাছাড়া যে কোন চাঞ্চল্যকর মামলার রহস্য উদঘাটন ও অপরাধীদের গ্রেফতারের জন্য র‌্যাব ছায়া তদন্ত করে আসছে।

গত ১১ জুন ২০২২ তারিখে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন যাত্রামূড়া এলাকায় পুলিশের উপর হামলা করে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ ফারুক হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং-২৭, তারিখ ১২/০৬/২০২২ ইং। বিষয়টি স্থানীয় ও জাতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ আকারে প্রকাশিত হয় যা এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

উল্লেখিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সংগ্রহসহ আসামীদের গ্রেফতারের জন্য র‌্যাব-১১, সিপিসি-১ এর একটি গোয়েন্দা দল ছায়া তদন্ত শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ১৭ জুন ২০২২ তারিখ র‌্যাব-১১, সিপিসি-১, নারায়ণগঞ্জ এর পৃথক দুটি অভিযানে নারায়ণগঞ্জের সদর হতে পুলিশের উপর হামলাকারী আসামী ছিনতাইয়ের কাজে জড়িত আসামী ১। রিনা বেগম (৪১), পিতা-মোঃ আঃ আওয়াল, সাং-ভারগাঁও কাজীপাড়া, ডাকঘর-বরাবো বাজার, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ, আসামী ২। রিপন মিয়া (৩৮), পিতা-মৃত আলী হোসেন, সাং-লক্কর বাড়ী, ডাকঘর-বরাবো বাজার, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ এবং ঢাকা জেলার নাবাবগঞ্জ হতে আসামী ৩। আছমা (৩৮) ও পুলিশের হেফাজত হতে ছিনিয়ে নেওয়া আসামী ৪। মোঃ আমিন উদ্দিন (৪০), উভয় পিতা-মোঃ আঃ আওয়াল, সাং-ভারগাঁও কাজীপাড়া, ডাকঘর-বরাবো বাজার, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জদের’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এ সময় আসামীদের হেফাজত হতে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া ০১টি  ওয়াকিটকি সেট, ০১ টি পুলিশ আইডি কার্ডসহ আরো গুরুত্বপূর্ণ আলামত উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, ঢাকা সিলেট মহাসড়ক সোনারগাঁ থানাধীন কাচঁপুরে অবস্থিত ওপেক্স সিনহা গামেন্টস এর সামনে ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ আমিন (৪০) অবস্থান করছে। সংবাদ পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ ফারুক হোসেন ও উপ-পরিদর্শক মেরাজুল ইসলাম সোহাগ উক্ত স্থান হতে তাকে ধৃত করে হেফাজতে নিয়ে দেহ তল্লাশীকালে আসামী তাদেরকে হঠাৎ সজোরে ধাক্কা মেরে দৌড়ে রূপগঞ্জ থানার যাত্রামূড়া এলাকার দিকে পালিয়ে যায়। তখন তারা পালিয়ে যাওয়া আসামীকে অনুসরণ করে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন যাত্রামূড়া এলাকার পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয়ের সামনে পুনরায় গ্রেফতার করেন এবং স্থানীয় লোকজনের সহায়তা চান। তখন হঠাৎ এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাতনামা আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে সরকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মোঃ ফারুক হোসেন ও মেরাজুল ইসলাম সোহাগদের হত্যার উদ্দেশ্যে অতর্কিত ভাবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দ্বারা হামলা করে গুরুতর জখম করে এবং গ্রেফতারকৃত আসামী ছিনিয়ে নেয়া সহ সরকারী মালামাল ওয়াকিটকি ওয়ারলেস সেট, মোবাইল, আইডি কার্ড ও নগদ টাকা আসামীরা হাতিয়ে নেয়। থানা পুলিশ উক্ত ঘটনার সংবাদ পেয়ে আহত পুলিশ সদস্যদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল ঢাকায় প্রেরণ করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা উক্ত ঘটনার বিষয়টি স্বীকার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানার তদন্তকারী কর্মকতার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।