বাড়ি রক্ষায় স্থানীয় মানুষ ও প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে ব্যর্থ

66

সফিকুল ইসলাম ইমামঃ সোনারগাঁয়ের এক নারীর নিজের জমি ও বাড়ি রক্ষায় স্থানীয় মানুষ ও প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে ব্যর্থ হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে তিন সন্তানসহ গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ভোক্তভুগী পরিবার।  

২৯ অক্টোবর শনিবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করেছিল- শিরিন খান (৩৫), শারমিন খান (১৬), জহির খান (১০) ও সাজিদা খান(৩)। সেখানে গায়ে কেরোসিন ঢালার পর উপস্থিত কয়েকজন ঐ নারীকে বাধা দেয়। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে দুপুর ১২টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়।

আত্মহত্যার চেষ্টাকারী শিরিন খান জানায়, এর আগেও কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে তিনি। দুদিন আগেও গলায় দঁড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তিনি আরও বলেন, আট বছর আগে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার বরফা এলাকায় আমি জমি কিনে বাড়ি করেছি এবং সেখানেই বসবাস করি। কিন্তু স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা হান্নান দীর্ঘদিন ধরে আমাকে বাড়ি ছাড়তে চাপ দিয়ে আসছে। হান্নান আমার নামে মামলা করেছে এবং হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। গত দুই মাস ধরে আমাকে বাড়িতেও যেতে দিচ্ছে না।

শিরিন খান বলে, আমি স্থানীয় মানুষ ও প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে ব্যর্থ হয়েছি। পুলিশকে জানালে তারা সহযোগিতা করতে চেয়েছে। কিন্তু হান্নানের সঙ্গে পেরে উঠছে না। হান্নান আমাদের বাড়িতে যেতে নিষেধ করেছে। আমাদের ১০ লক্ষ টাকা দিয়ে সব কাগজপত্র দিয়ে দিতে বলেছে।

তিনি বলেন, দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোনো উপায় না পেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছি। আমার আর কোনো উপায় নেই। আমার মেয়েটার ব্রেনে সমস্যা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ইন্সপেকটর বাচ্চু মিয়া জানান, গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টায় পুলিশ বাধা দিলে ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে তারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে প্রেস ক্লাব এলাকার দায়িত্বরত পুলিশ তাদের চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসে। পাকস্থলী ওয়াশ দিয়ে দেয়ার পরে নতুন ভবনের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে তাদেরকে।

জাতীয় ভেজাল প্রতিরোধ ফাউন্ডেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি সাংবাদিক সুলতান মাহমুদ সোনারগাঁ থানার নির্বাহী কর্মকর্তা ও সোনারগাঁ থানার ওসি মহোদয়কে ভোক্তভোগী পরিবারকে সহযোগিতা করার জন্য এবং নির্যাতনকারী ও ভুমি দখলবাজকে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করার আহবান জানান।