আজ থেকে মাঠ পর্যায়ে ব্যালট বক্স পাঠানো শুরু হচ্ছে -ইসি

164


মোঃ মোক্তার হোসাইন নিউজ ডেক্স –
নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেছেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে আজ থেকে ব্যালট বক্স পাঠানো হবে। তবে তার আগে বিএসটিআইয়ের রিপোর্ট হাতে পেতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে ঢাকা আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে স্বচ্ছ ব্যালট বক্স পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, যদি বিএসটিআইয়র রিপোর্ট আজ আসে তাহলে ব্যালট বক্স যাবে। তবে এখনো এসে পৌঁছায়নি, রিপোর্ট রেডি হয়েছে শুনেছি, তাহলে আজকে ঢাকা অঞ্চলে আমরা পাঠাবো।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, আমরা ৮০ হাজার বক্স ক্রয় করছি। প্রথম লটে আমরা ৪০ হাজার বক্স পেয়েছি। এর মধ্য থেকেই আমরা ডিস্ট্রিবিউশন শুরু করব। আমরা এবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি প্রতিটি মালামাল পাওয়ার পরে আবার টেস্ট করব। এই টেস্টে যদি কোয়ালিফাই করে সেক্ষেত্রে মাঠ পর্যায়ে পাঠানো হবে। আগের স্যাম্পলগুলো যেহেতু বিএসটিআই টেস্ট করেছে, তাই এবারও ব্যালট বক্স বিএসটিআইয়ের মাধ্যমে টেস্ট করব।

তিনি বলেন, এখন শুধু ব্যালট বক্স পাঠানো শুরু হবে। তবে অন্যান্য সরঞ্জাম এখনো যাওয়া শুরু হয়নি। হয়তো আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হবে।

প্রয়োজন হলে সংসদ ভোটের ১৫ দিন পর্যন্ত পুলিশ রাখা হবে
ব্যালট বাক্সের স্তূপ ইসিতে, চাহিদা অনুযায়ী পাঠানো হবে জেলায়
দেশি পর্যবেক্ষক আরও বাড়াতে চায় ইসি
সরঞ্জামগুলোর মধ্যে কি কি আছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ব্যালট বক্স আছে, ব্যালট বক্সের ঢাকনা আছে, দুই ধরনের ব্যাগ আছে, গালা আছে, স্ট্যাম্প প্যাড আছে। স্ট্যাম্প প্যাড সরঞ্জাম ১৫ তারিখের পর পাব। বাকি সরঞ্জামগুলো আমরা ধাপে ধাপে পাঠিয়ে দেব।

নিরাপত্তার বিষয়ে কী ব্যবস্থা নিচ্ছেন— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিরাপত্তা অন্যান্য বারের মতোই। যখন সরঞ্জাম যায় তখন আমরা পুলিশের কাছে নিরাপত্তা চাই। এভাবে পুলিশি নিরাপত্তায় আমরা পাঠিয়ে দেই।

বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশেষ কোনো নিরাপত্তা পরিকল্পনা আছে কিনা? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিশেষ কোনো পরিকল্পনা নাই, আমাদের নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর। আমরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছেই নিরাপত্তা চাইব।

এবার কতগুলো ব্যালট বক্স লাগবে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ব্যালট বক্স লাগবে তিন লাখ প্লাস। এর মধ্যে পুরোনো আছে ২ লাখ ৬৭ হাজার। এবার আমরা ৮০ হাজার কিনেছি। আমাদের নির্বাচনী অঞ্চল ১০টি। ৮টি প্রশাসনিক বিভাগ এবং এর সঙ্গে ফরিদপুর ও কুমিল্লা। ব্যালট বক্সগুলো নির্বাচনী অঞ্চল গুলোতে যাচ্ছে, অন্যান্য মালামাল সরাসরি জেলায় যাবে। আমাদের নির্বাচনী বাজেট এখনো ফাইনাল হয়নি। সামনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আমরা বসব, তারপর বাজেট ফাইনাল করব। এটা আমরা ২৫ তারিখের পর বসতে পারি।

এখন পর্যন্ত কী ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার মতোই আছে নির্বাচনী বাজেট? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ১ হাজার ৬০০ কোটির কথা তো আমরা বলিনি। ১ হাজার ৪০০ এর কিছু বেশির কথা বলেছি। এটা বাড়তে পারে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হতে আমরা প্রস্তাব পেলে এটা বুঝতে পারব।