বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

51

রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি।

রাজশাহীর বাঘায় জাতীয় দৈনিক স্বাধীন দেশ পত্রিকার রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি ও বাঘা রিপোটার্স ক্লাবের সদস্য সাংবাদিক তন্ময় দেবনাথ এর উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২ টায় এলাকাবাসীদের আয়োজনে আড়ানী পৌরসভা সংলগ্ন রাস্তায় এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

দৈনিক লাখো কন্ঠ পত্রিকার পুঠিয়া উপজেলা প্রতিনিধি ইমাম হোসেন এর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় দৈনিক কালবেলা প্রত্রিকার বাঘা উপজেলা প্রতিনিধি ও বাঘা রিপোটার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম ইসলাম দিলদার, দৈনিক আমাদের জন্মভূমি পত্রিকার প্রকাশক সোহেল রানা, দৈনিক সমাচার পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি আবুল হাসেম, ক্রাইম নিউজ বিডি রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি হালিম কাজী।

উক্ত মানববন্ধনে সাংবাদিকগণ বক্তব্যে বলেন, সারাদেশের বিভিন্ন সময় সংবাদকর্মীদের উপর হামলা,মামলা নির্যাতন, হয়রানিসহ সহিংসতার ঘটনা বেড়েই চলেছে। আমরা সাংবাদিকরা সমাজ ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকি। কিন্তু সাংবাদিকদের উপর যখন নির্যাতন, হামলা ও মামলা করা হয় তখন সমাজ ও রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ দুর্বল হয়ে পড়ে। আমরা সাংবাদিক কলমের মাধ্যমে সমাজ গ্রাম উপজেলা জেলা বিভাগসহ রাস্ট্রের বিভিন্ন প্রকার অনিয়ম, দুর্নীতির খবর প্রকাশ করে রাস্ট্রনায়ক ও দেশ পরিচালনা কমিটি দেশকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার সহযোগিতায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকি।
আমরা সাংবাদিক নিজ দায়িত্ব পালন কালে যারা বাধা প্রদান করে তাদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

অন্য সাংবাদিক বক্তারা বলেন, সাংবাদিকদের কলমের মাধ্যমেই দেশের প্রকৃত বস্তুনিষ্ঠ ঘটনাবলি তুলে আনা সম্ভব। আইন করে কিংবা নির্যাতন করে সাংবাদিকদের কলমের লেখনী বন্ধ করা যাবে না। প্রশাসনকে অনুরোধ করা হয় তন্ময় দেবনাথের প্রকৃত অপরাধীদের আইনে আওতায় সঠিক শাস্তির দাবি করেন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় দৈনিক অগ্রযাত্রা পত্রিকার রাজশাহী বিভাগীয় প্রধান শাহাদত হোসেন, জাতীয় দৈনিক আজকের আলোকিত সকাল প্রত্রিকার বাঘা প্রতিনিধি সাজ্জাদ মাহমুদ সুইট, দৈনিক ক্রাইম তালাশ পত্রিকার লালপুর প্রতিনিধি সাহাবু্দ্দিন, দৈনিক ক্রাইম নিউজ প্রতিনিধি আঃসালাম ,বড়াল নিউজ ২৪.কম বার্তা সম্পাদক মোঃ লিখন ইসলাম, ফেস দ্যা পিপুল্স সাংবাদিক মাসুম ইসলাম ,সাংবাদিক হেলাল উদ্দিন, সাংবাদিক রাতুলসহ স্থানীয় এলাকাবাসী।