বেড়েছে হাটহাজারীতে মোবাইল ছিনতাই

87

মোঃআরফাতুল ইসলাম (হাটহাজারী)চট্টগ্রামঃ
হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড নাজিরহাট-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের মাঝ পথে দৈনন্দিন মোবাইল ছিনতাই।থানায় জিডি করার ১৫দিন পার হলেও ভুক্তভোগী পাইনি কোন তথ্য ও সুরহা।ভোক্তভোগীদের দাবী মোবাইল চোরের এই দুর্ধর্ষ ডাকাতি বেড়েই চলছে প্রতিদিন।

হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড নাজিরহাট-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের নূর মসজিদ এরিয়া, মিরের হাটের পর থেকে মুন্সির মসজিদ,চারিয়া ও সরকারহাট হতে কাপ্তাই-রাঙ্গামাটি মহাসড়কের কঁড়িয়ার দিঘির পাড় হয়ে ইছাপুর গহিরার আগ পর্যন্ত একটি মডিফাইডকৃত, নম্বর বিহীন বাইককে করে ২জন কিশোরসহ তাদের সিন্ডিকেটরা দীর্ঘদিন ধরে মুখে মাক্স ও হেলমেট পরিদান করে,গত ১মাস ধরে মোবাইল ছিনতাই করে আসছে এই চক্রটি।

সম্প্রতি গত ২/১দিন ধরে একই নিয়মে অটোরিকশা, সিএনজিসহ বাসে থাকা যাত্রীদের কাছ থেকে দ্রুতগতিতে বাইক নিয়ে এসে হাত দিয়ে ঝাপটিয়ে মোবাইল ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশ সরগরম করছে ফেইসবুক গণমাধ্যমে।
ভুক্তভোগীরা বলেন,,ওই চক্রটি বিশেষ করে সিএনজিতে থাকা যাত্রীদের দূর থেকে টার্গেট করে রাখেন।কোন যাত্রী যদি গাড়িতে বসে মোবাইল টিপেন, ওই সিএনজি গাড়িকে লক্ষ করে নম্বর বিহীন ও মডিফাইডকৃত বাইকটি নিয়ে মোবাইল ঝাপটিয়ে দ্রুত বাতাসের গতিতে বাইক চালিয়ে সটকে পড়েন।

এবিষয়ে ভুক্তভোগী মোঃ ফরহাদ হোসেন বলেন,
এই মাস দুইয়েক আগে সেইম ঘটনা আমার সাথে হয়।আল্লাহ সহায় ছিলো বলে মোবাইল নিতে পারে নাই।

ভুক্তভোগী মো সেলিম(২৯) /01876039738
থানায় সাধারণ ডায়েরী করে বলে প্রতিবেদককে জানান।জিডি নম্বর ৩৩/তাং ১-০৪-২৪ইং।
তিনি বলেন আমি পৌরসদর শায়েস্থা খা পাড়া এবাদত খানা মসজিদে সেহরি পরবর্তী ফজরের নামাজ আদায় করে মসজিদের বারান্দায় ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলাম।সকাল ৮টার দিকে আমার মোবাইলটি চুরি করে নিয়ে যায়।আমি মডেল থানা পুলিশের কাছে সহযোগিতা কামনা করছি।মোবাইলের ধরনঃ Redmi, মডেল: 10c ব্যটারী5000এম্পিয়ার,
আইএমইনম্বর861954068946769,861954068946777,র্যাম:4G রম:128।বাজার মূল্য: 16000টাকা।

ভুক্তভোগী মোঃ সাজেদুল আলম ৩১/01828612827
থানায় সাধারণ ডায়েরী করে বলে প্রতিবেদককে জানান।মোবাইল ফোনের ধরন:শাওমি মডেল : Note 12 pro /অপারেটিং সিস্টেম : এন্ড্রয়েড আইএমইনম্বর:860253063307809,860253063307817 ক্রমি ক নং : 2209116AG ব্যটারী (মি .এম্প) : 5000 মূল্য : 28000.00 র‌্যাম : 8GB রম : 128GB রং : Blue

এ বিষয়ে হাটহাজারী থানার ওসি মনিরুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন,হাটহাজারী পৌরসদরে সাদা পোশাকসহ আমাদের ১১টি টিম কাজ করছে।তবে এই পর্যন্ত মোবাইল ছিনতাই কোন তথ্যে আসে নি।পরে ভুক্তভোগীদের মোবাইল হারানোর জিডির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমাদের টিম কাজ করছে।