দোয়ারাবাজারে এস এস সিতে পাশের হার ৬০.৩৮, জিপিএ-৫টি দাখিলে পাশরে হার ৮৭.২১ জিপিএ ৫ নইে!

451

দোয়ারাবাজার উপজলোয় ১৮ টি বদ্যিালয়রে ২৩শত ২০ জন পরীর্ক্ষাথী অংশ গ্রহণ করে পাশ করেছে ১৪শত ১জন পাশ করেছে। মোট পাশরে হার ৬০.৩৮, তারমধ্যে জিপি এ-৫ পেয়েছে ১৩ জন পরীর্ক্ষাথী। এদিকে ১০টি মাদরাসার ৫২৪ জন পরীর্ক্ষাথী এবাররে দাখিল পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে ৪৫৭ জন পাশ করেছে। মাদরাসায় মোট পাশরে হার৮৭.২১। তবে কোনো প্রতিষ্ঠান জিপি এ ৫ পাইয়নি। গড় হিসেবস উপজলোয় স্কুলরে চেয়ে মাদরাসা এগিয়ে রইয়েছে। এসএসসি পরীক্ষায় ১৮টি বিদ্যালইয়ের মধ্যে শতভাগ পাশ নেই কোনো প্রতিষ্ঠানে তবে উপজেলার সমুজ আলী স্কুল ও কলেজে মোট পরীর্ক্ষাথী ছিল ১২৯জন তন্মধ্যে পাশ ক্রেছে ১১০জন। ওই প্রতিষ্ঠানের পাশের হার ৮৫ দশমিক ২৭ ভাগ। জিপি এ-৫ নেই। সোনাপুর মডলে উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩৩ জন পরীর্ক্ষাথী অংশ গ্রহণ করে ২৭ জন পাশ করে দ্বতিীয় স্থানে রইয়েছে। জিপি এ-৫ নেই। তৃতীয় স্থানে র‍্যেছে উপজেলার রাগিব-রাবয়ো উচ্চ বিদ্যালয়ে বালিউরা। ওই প্রতিষ্ঠানের ৬৮ জন অংশ গ্রহণ করে ৫৫ জন পাশ করে। প্রতিষ্ঠানের গড় পাশের হার ৮০.৮৮। জিপি এ -৫ নেই । অপর দিকে এবারের দাখিল পরীক্ষায় উপজেলার ১০টি মাদরাসার মধ্যে নরসিংপুর আর্দশ দাখিল মাদারাসায় শতভাগ পাশ করেছে ওই প্রতিষ্ঠানের মোট পরীর্ক্ষাথী ছিল ৪৭জন তন্মধ্যে ৪৭ জন পাশ করেছে ফলাফলের দিক থেকে দ্বতিীয় হইয়েছে উপজেলার কলাউড়া কাছ্রমিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা। এবার মোট পরীর্ক্ষাথী ছিল ৯৯ জন তন্মধ্যে ৯৮ জন পাশ করেছে গড় পাশের হার ৯৮.৯৮। তৃতীয় হইয়েছে পেশকারগাঁও ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা। এবার ৪৩জন পরীর্ক্ষাথী অংশ গ্রহণ করে পাশ করে ৪১জন। পাশরে হার ৯৫.৩৪।