খোকাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে পৌরসভার প্যানেল মেয়রসহ বিএনপি নেতাদের জাতীয় পার্টিতে যোগদান

436

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ সোনারগাঁয়ের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে পৌরসভার প্যানেল মেয়র সহ প্রায় তিন শতাধিক বিএনপি নেতা জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেছে। ৩ সেপ্টেম্বর সোমবার রাতে উপজেলার মোগরাপাড়া চৌরাস্তাস্থিত সাংসদের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও বিএনপি নেতা নাসিম পাশা, বিএনপি নেতা হাজী নুরুজ্জামান প্রধান, হাজী ফজল মিয়া ও কামাল প্রধানের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টিতে যোগদানকারীদের মধ্যে রয়েছেন- মোগরাপাড়া ইউনিয়নের হাবিবপুর ও কোম্পানীগঞ্জ গ্রামের বিএনপি নেতা হাজী শফিউদ্দিন মেম্বার, হাবিবুর রহমান প্রধান, মোক্তার হোসেন, দেলোয়ার বেপারী, নোয়াব হোসেন, মহারাজ বেপারী, ইমান আলী বেপারী, সোলেমান বেপারী, রাব্বী বেপারী প্রমুখ।

যোগদান অনুষ্ঠানে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, জাতীয় পার্টি একটি উন্নয়ণবান্ধব রাজনৈতিক দল। পক্ষান্তরে বিএনপি চাপার জোরে ধোঁকাবাজির রাজনীতি করে। তারা ক্ষমতায় থাকাকালে দেশের উন্নয়ণের চেয়ে নিজেদের পকেটের উন্নয়ণ বেশি করেছে। এতিমের হক মেরে খেয়েছে। তাই আল্লাহ তায়ালা এখন খালেদা জিয়া সহ তার লুটপাট বাহিনীর বিচার করছেন।

তিনি বলেন, আজ যারা বিএনপি ছেড়ে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি জাতীয় পার্টিতে যোগদান করলেন আমি আপনাদেরকে অভিনন্দন জানাই। আপনারা এখন জাতীয় পার্টির পরিবারের সদস্য। আমি আপনাদেরকে নিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গে দেখা করবো।

তিনি আরো বলেন, আমি সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে অদ্যবধি সোনারগাঁয়ের মানুষকে শান্তিতে রাখার চেষ্টা চালিয়ে আসছি। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে আমি কাউকে মিথ্যা মামলা-হামলার মাধ্যমে হয়রানী করিনি। মহাজোটের এমপি হিসেবে আমি স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি আওয়ামীলীগকে সাথে নিয়েই সোনারগাঁয়ের প্রয়োজনীয় কাজগুলোর ৮০ ভাগ কাজ সম্পন্ন করেছি। আল্লাহ তায়ালা যদি আমাকে আরেকবার সংসদ সদস্য হিসেবে কবুল করেন তাহলে সোনারগাঁয়ে কোন মাটির রাস্তা থাকবে না ইনশাআল্লাহ। আমি গ্রামগঞ্জের রাস্তাগুলোকে প্রশস্ত করার উদ্যোগ নিয়েছি। সেগুলো কমপক্ষে ২৪ ফুট প্রশস্ত করা হবে। গ্রামের মানুষেরাও যাতে এক বাড়ি থেকে অন্য বাড়িতে রিক্সা দিয়ে যেতে পারে আমি সেই পরিকল্পনা নিয়েই কাজ করছি। আমি সোনারগাঁয়ে একটি উন্নতমানের আধুনিক হাসপাতাল, কয়েকটি কারিগরি স্কুল ও কলেজ নির্মাণের চেষ্টা চালাচ্ছি। সোনারগাঁ ডিগ্রী কলেজ ও মোগরাপাড়া হাইস্কুলকে আমি সরকারি করেছি। সোনারগাঁয়ের যেসব রাজনীতিবিদরা আমার সাথে হিংসা করেন- আমি তাদেরকে শুধু ক্ষমা করেছি তাই নয়, বরং তারা যখন যা দাবি জানিয়েছেন আমি তা পূরণ করে দিয়েছি। কাজেই আমি তাদের কাছে ঋণী নই। কিন্তু তারা আমার কাছে ঋণী।

যোগদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- পৌরসভা জাতীয় পার্টির সভাপতি হাজী পিয়ার আলী, জামপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির আহŸায়ক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ হানিফ, নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টি নেতা আজিজুর রহমান বাদল, আনিসুর রহমান রানা, সোনারগাঁ উপজেলা জাতীয় পার্টি নেতা হাজী শামীম রেজা, হাজী জাবেদ রায়হান, মোহাম্মদ শহীদ, শেখ ফরিদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টি নেতা কাজী লিটু, মাইনুল ইসলাম মামুন, উপজেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি ফজলুল হক, সিনিয়র সহ-সভাপতি ইকবাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সেকান্দার আলী প্রমুখ।