ডাক্তার দেখাতে হাসপাতালে যাওয়ার পথে ট্রাকের ধাক্কায় এক নারী নিহত

355

সময়ের চন্তা ডট কমঃ নারায়ণগঞ্জে ডাক্তার দেখাতে হাসপাতালে যাওয়ার পথে ট্রাকের ধাক্কায় এক নারী নিহত হয়েছে। নিহতের নাম শেফালী বেগম (৫০)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার ( ৪ সেপ্টম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাড়া রেলওয়ে মসজিদের সামনে। নিহত শেফালী বেগম ফতুল্লার মাসদাইর এলাকার জালাল উদ্দিনের স্ত্রী। পরে নারায়ণগঞ্জ-ঢাকা লিংক রোডের আজগর পেট্টোল পাম্প ও রাইফেলস ক্লাবের মধ্যবর্তী স্থান থেকে একটি স্কুলের দুই শিক্ষার্থী ঘাতক ট্রাকটি আটক করে এর চাবি জব্দ করে পুলিশকে বুঝিয়ে দেয়। পরে পুলিশ ঘাতক ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট ১৬-৭৩৭৭) সহ এর চালক নূরুল ইসলামকে আটক করে। সে কেরানীগঞ্জের আব্দুল মজিদের ছেলে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (অপারেশন) মো. মজিবুর রহমান জানান, সকালের দিকে ওই নারী রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি ট্রাক তাকে ধাক্কা দেয়। এতে সে রাস্তায় ছিটকে পড়ে।  পরে স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা বিশিষ্ট খানপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) আরিফুর রহমান জানান, ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক ট্রাক ও চালককে ট্রাফিক পুলিশ আটক করে আমাদের হাতে তুলে দিয়েছেন। তবে এর চালক নূরুল ইসলাম দাবি করছেন তার গাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটেনি। তবে স্থানীয়রা দুর্ঘটনার পরপরই চালকসহ ট্রাক তাকে আটক করে। আমরা ঘটনাটি যাচাই বাছাই করছি।

ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর (টিআই) শরফুদ্দিন জানান, দুর্ঘটনাকালীন সময়ে প্রত্যক্ষদর্শী ছিলো কমর আলী স্কুলের দুই ছাত্র। তারাই প্রথমে গাড়িটিকে আটক করে চাবি নিয়ে নেয়। পরে আমাদের হাতে চাবি বুঝিয়ে দিয়ে ওরা ঘটনার বর্ণনা করে। পরে রেকার দিয়ে ফতুল্লা থানা পুলিশের কাছে এর চালকসহ ট্রাকটি বুঝিয়ে দেয়া হয়।

শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার শিকার নারীকে হাসপাতালে আনার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের পরিবার মরদেহ নিয়ে গেছেন।

ন্হিত শেফালী বেগমের ছেলে জাকির হোসেন জানান, মাসদাইরের বাসা হতে সকাল সাড়ে ১০টায় খানপুরে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে যাওয়ার পথে চাষাঢ়া রেল স্টেশনের সামনে পিছন থেকে বেপোয়ারা গতির একটি ট্রাক রিকশাকে ধাক্কায় দেয়। ওই সময় পড়ে গিয়ে তার মা আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।