সোনারগাঁয়ে লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টুর লোক দেখানো উন্নয়ন মেলা পরিদর্শন

405

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ (সোনারগাঁ)-৩ আসনের এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশী এবং নৌকার নতুন মাঝি হওয়ার মিথ্যে স্বপ্নে বিভোর লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু। শীতকালীন নতুন অতিথি পাখী নৌকার নতুন মাঝি পিরোজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামের মৃত. সাহাবুদ্দিন ওরফে শাওনের ছেলে লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে এমপি পদে নির্বাচন করার জন্য মিথ্যে স্বপ্নে বিভোর হয়ে আছেন।

শীতের অতিথি পাখির মতো লন্ডন থেকে বাংলাদেশে এসে তার ছবি সম্বলিত ব্যানার-ফেষ্টুন দিয়ে এলাকায় বিভিন্ন প্রচার-প্রচারনায় নামার দৃশ্যটি অনেকের কাছেই হাস্যকর। হঠাৎ করে তার নেতা বনে যাওয়ার বিষয়টিও সবকিছু মিলে যেন সাধারণ মানুষের মধ্যে বেশ হাস্যরসের সৃষ্টি হয়েছে। বেশ কয়েকদিন পর পর দেখা যাচ্ছে, লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু নৌকার পক্ষে কাজ করলেও মূলত তিনি নারায়ণগঞ্জ-৩ এর এই আসনের নৌকা প্রতীক নিয়ে লোক দেখানো প্রচারনায় নামেন। বাংলাদেশে এসে নতুন মুখ হিসেবে ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু আওয়ামীলীগের এই আসনটিতে যতই প্রচারনা করুক না কেন, স্থানীয় কতিপয় (মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবী) যুবকরা তার পক্ষে থাকলেও মূলত স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারাই তাকে প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখছেন। এছাড়াও অনেককেই বলতে শোনা যাচ্ছে, এভাবে প্রচার-প্রচারনা করে তার কোন লাভ নেই। শেষ পর্যন্ত তার সব পরিশ্রমই জলে ভেস্তে যাবে বলে অনেকেই মনে করছেন। তবে তাকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহযোগীতা করছেন অপর যুক্তরাজ্য প্রবাসী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিষ্ট আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী। এই আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরীই নাকি ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টুকে মনোনয়ন পাইয়ে দেয়ার জোর মিথ্যে আশ্বাস দিয়ে চলেছেন। সোনারগাঁয়ে উন্নয়ন যার দ্বারা কখনোই সম্ভব নয়, যে উন্নয়ন কি জিনিস তা ভালোভাবে বুঝেই না, তাকে আবার জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়ন দিবে এটা হাস্যকর বিষয় ছাড়া আর কিছুই না।

নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় অনেক নেতাই সোনারগাঁ থেকে এবার নৌকার মনোনয়ন পাওয়ার পক্ষে। তবে উপজেলা আওয়ামীলীগকে রক্ষা করতে নৌকার বিকল্প নেই বলেও মনে করেন এসব তৃনমুল নেতারা। সোনারগাঁয়ের যোগ্য নেতা কর্মীরাই যেখানে বিভক্ত হয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে, আসলে কে পাবে নৌকার মনোনয়ন। সেখানে শীতকালীন নতুন অতিথি পাখী ও নৌকার নতুন মাঝি লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু এই আসনের নৌকাকে জয় করবে কিভাবে? সে তো লাফালাফি করছে লগি, বৈঠা ও হাল ছাড়া নৌকাকে ডুবাতে, দেশে এসেই লোক দেখানো ফটোসেশনে ব্যস্ত থাকে সে।

সূত্র মতে জানা গেছে, সোনারগাঁ উপজেলায় ৪ দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলার ৩য় দিনে উন্নয়ন মেলা পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপ-কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সদস্য ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম। মেলায় বিভিন্ন ষ্টল ঘুরে দেখেন তিনি। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) বিএম রূহুল আমিন। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়নগঞ্জ-৩ এর সোনারগাঁ আসন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী এই ও লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু বলেন, দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে চলছে প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনার অবদানে। তাঁর নেতৃত্বে বিশে^র বুকে আমরা উন্নত জাতি হিসাবে আত্ম প্রকাশ করতে পারছি। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও শেখ হাসিনার সরকার প্রয়োজন, তাই নৌকার বিজয়ের কোন বিকল্প নাই। এমন সব বক্তব্য অন্যান্য নেতারাও দিয়ে যাচ্ছেন। তবে তাদের বক্তব্যের কোন সমালোচনা নেই।

এদিকে সংশ্লিষ্ট মহল বলছে, শীতকালীন এই নতুন অতিথি পাখী ও নৌকার নতুন মাঝি হিসেবে খ্যাত লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু স্থানীয়ভাবে কাউকেই তেমন কোনো পাত্ত¡া দেননা। এমনকি সোনারগাঁ তথা নারায়ণগঞ্জে গণমাধ্যম কর্মীদের কয়েকটি প্রেসক্লাব বা সংগঠনের সাথেও তার কোন পরিচয় নেই। যেখানে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরাই তাকে ভালো করে চিনে না, জানে না, সেখানে সে কিভাবে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশা করে? সংশ্লিস্টমহলের অভিমত, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সোনারগাঁ থেকে যারা ইতিমধ্যেই গ্রীন সিগন্যাল পেয়েছেন, তাদের বাড়া ভাতে ছাই দিতে চাইছেন ইঞ্জি. শফিকুল ইসলাম মিন্টু।

যারা তাকে আসন্ন নির্বাচনে এমপি পদে প্রচারনার জন্য তার বিদেশী অর্থের লোভে মোহাচ্ছন্ন করে রেখেছে। যেখানে ডিজিটাল বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে মাদকমুক্ত করার দৃঢ় পদক্ষেপ নিয়েছেন, সেখানে শীতকালীন নতুন অতিথি পাখী ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টু কতিপয় মাদকসেবী যুবকদেরকে সাথে নিয়ে মোটা অংকের অর্থ ব্যয় করে ডিজিটাল পদ্ধতিতে তার নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা চালাচ্ছেন বলে সূত্রে জানা গেছে। তিনি ঐসব মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবী যুবকদের পরামর্শে তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে বিদেশী অর্থে ঐসব যুবকদের পিছনে ব্যয় করে ছুটে চলেন এখানে সেখানে। আর সোনারগাঁয়ের মানুষও তাকে নির্বাচনী দিক দিয়ে ইতিবাচক হিসাবে দেখছে না।

এব্যাপারে ইঞ্জিঃ শফিকুল ইসলাম মিন্টুর সাথে তার মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার মোবাইলটি বন্ধ পাওয়া যায়।