আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস উপলক্ষ্যে এক বনাঢ্য র‌্যালী ও উন্মুক্ত আলোচনার আয়োজন

611

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ আজ ১৯ই নভেম্বর আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনের উদ্দেশ্যে Bangladesh Men’s Rights Foundation (BMRF) এর উদ্যোগে এক বনাঢ্য র‌্যালী ও উন্মুক্ত আলোচনার আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত র‌্যালীটি আজ সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শুরু করে হাইকোর্ট হয়ে আবার প্রেসক্লাবের সামনে এসে স্বল্পকালীন উন্মুক্ত আলোচনার মাধ্যমে শেষ করা হয়েছে। সমগ্র বিশ্বজুড়ে উদযাপিত আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস’কে বাংলাদেশে যথাযোগ্যভাবে উৎযাপনের লক্ষ্যে আমাদের আয়োজিত বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও র‌্যালী পরবর্তী উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন, অত্র সংগঠনের উপদেষ্টা এ্যাড কাউছার হোসেন, মহাসচিব প্রকৌশলী ফারুক সাজেদ শুভ, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম নাদিম, অর্থবিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলামিন হোসেন, প্রচার সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক খান, কার্যকরী সদস্য সামিন ইয়াসোর ইউসা এবং  মোঃ নুরুজ্জামান আব্দুর রব। আরো বক্তব্য রাখেন মোঃ সিরাজী (আমেরিকা প্রবাসী), জে,এইচ, খান শাহীন, মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ অন্যন্যা সদস্যবৃন্দ। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, অত্র সংগঠনের চেয়ারম্যান শেখ খায়রুল আলম।

সর্বশেষে সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, আজ ১৯ নভেম্বর আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস। ১৯৬৮ সালে আমেরিকান সাংবাদিক জন.পি. হ্যারিস পুরুষ দিবস পালনের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি নারী দিবস পালনের পাশা-পাশি জেন্ডার সমতা রক্ষার স্বার্থে পুরুষ দিবস পালনের গুরুত্ব তুলে ধরেন। এখন এই দিবসটি বিশ্বের ৭০টিরও বেশী দেশে পালন করা হয়। পুরুষ দিবসের এ বছরের প্রতিবাদ্য “বিষয় বৈষম্য নয় পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হোক” আজকের এই পুরুষ দিবসে পুরষ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দাবী জানাচ্ছি। আজ ঘরে বাহিরে সব জায়গায় পুরুষরা নির্যাতিত হচ্ছে। কিন্তু আত্ম সম্মানের জন্য প্রকাশ করতে পারছে না। আবার আইন না থাকায় আইনের আশ্রয় নিতে পারছেন না। নারী নির্যাতন ও যৌতুক মামলাকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে নারীরা। পরকিয়া ও অবাধ্য স্ত্রীকে শাসন করতে গেলেই স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা নারী নির্যাতন ও যৌতুক মামলা দিচ্ছে। সুষ্ঠ তদন্ত ছাড়া গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করা না হয়, জেল হাজতে গেলে মানুষের সামাজিক মর্যদা ক্ষুন্ন হয়। সম্মান একবার চলে গেলে তা আর পাওয়া যায় না। অপরাধীর সাজা হোক তা আমরাও চাই। কিন্তু নিরপরাধ মানুষ যাতে জেল হাজতে না যায়, সেজন্যই আমাদের এই আন্দোলন।