ভারতে ঘুরতে গিয়ে বাংলাদেশি যুবক নিহত

109

নিজস্ব প্রতিনিধিঃভারতে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৬ মার্চ) সকালে নিহত নাঈমুর রহমান প্রান্তের চাচা আক্তার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।নিহত যুবক নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার লালপুর এলাকার কামাল হোসেনের ছেলে নাঈমুর রহমান প্রান্ত (২৪)। তিনি আমেরিকান ইউনিভার্সিটির বিবিএর শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

আহত ব্যক্তিরা হলেন, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনের ছেলে তাইহান তাবাচ্ছির সোয়াদ (২৫) ও ফতুল্লা থানা গেইট সংলগ্ন আমীর আলী সুপার মার্কেটের মালিক মৃত জহিরুল আলমের ছেলে আলী আকরাম আকিব (২৬) ও তার ছোট ভাই আলী আরমান আদিব (২২)।

জানা গেছে, সোমবার (১৪ মার্চ) রাতে ভারতের গোয়ায় দুর্ঘটনায় নিহত হন প্রান্ত। এ ঘটনায় আরও ৩ বাংলাদেশি যুবক আহত হয়েছেন। পরে আহতদের ভারতের গোয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে আদিবের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নাঈমুর রহমান প্রান্তের চাচা আক্তার হোসেন বলেন, গত রোববার (১৩ মার্চ) সকাল দশটার ফ্লাইটে আমার ভাতিজা বন্ধুদের সঙ্গে ভারতের মুম্বাইয়ে যায়। সেখান থেকে গোয়া যায়। সোমবার (১৪ মার্চ) রাতে গোয়ায় প্রাইভেটকার দুর্ঘটনায় প্রান্ত মারা যায়। মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকালে ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহামন স্বপন আমাকে এ দুঃসংবাদটি দেন।

তিনি আরও বলেন, রাত আড়াইটার দিকে সর্বশেষ ফোনে কথা হয়েছিল প্রান্তের সঙ্গে। প্রান্ত নিজেই গাড়ি চালাচ্ছিল। রাত সাড়ে তিনটার দিকে তারা দুর্ঘটনার শিকার হয়।

ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন জানান, মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে আহত সোয়াদ মোবাইল ফোনে দুর্ঘটনার সংবাদ জানিয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, ঘটনার বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।