১২ হাজার পিস ইয়াবাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

344

র‍্যাব-১১ এর অভিযানে ১২ হাজার পিস ইয়াবাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করে। র‍্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধের উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতার আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য র‍্যাব ফোর্সেস নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে। মাদকের করাল গ্রাস থেকে যুব সমাজ তথা দেশকে বাচাঁতে র‍্যাব নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৩ ডিসে¤¦র ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে ১৪৩০ ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ জেলায় সোনারগাঁ  থানাধীন মোগড়াপাড়াস্থ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গোপন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে পরিচালিত র‍্যাব-১১ এর চেকপোস্টে প্রাইভেটকারে তল্লাশী করে ১২ হাজার পিস ইয়াবা ও মাদক বিক্রির নগদ ৬,০৫৫/- টাকা উদ্ধারসহ   ০২ মাদক ব্যবসায়ী’কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো ১। মোঃ সোহেল কাজী(৩১) ও ২। মোছাঃ সাবাহ আফরিন(২০)। তল্লাশীকালে মাদক ব্যবসার কাজে ব্যবহৃত ০১টি প্রাইভেটকারও জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় মোঃ সোহেল কাজী ও মোছাঃ সাবাহ আফরিন’দের বাড়ী চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানাধীন পূর্ব কাউনিয়া এলাকায় এবং তারা পরস্পর স্বামী-স্ত্রী। গ্রেফতারকৃত আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকায় অভিনব পন্থায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল। তার একমাত্র পেশা ছিল মাদক ব্যবসা। জিজ্ঞাসাবাদে আরোও স্বীকার করে যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ উবার গাড়ী ব্যবহার করে পরস্পর যোগসাজসে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক ও পরিচয়কে পুঁজি করে অবৈধভাবে চট্টগ্রাম অঞ্চলের সীমান্ত এলাকা দিয়ে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা বাংলাদেশে প্রবেশ করায় এবং বিভিন্ন কৌশলে নিয়ে এসে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে উবার প্রাইভেটকারযোগে সরবরাহ করে আসছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।