মার্কিন সহায়তা দেয়ার খবরে বেজায় চটেছে রাশিয়া

37

ইউক্রেনকে নতুন করে মার্কিন সহায়তা দেয়ার খবরে বেজায় চটেছে রাশিয়া। শনিবার মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভসে এ সংক্রান্ত একটি বিল পাস হয়।

এর প্রতিক্রিয়ায় ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, এতে করে যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনে প্রাণহানি ও ধ্বংস ডেকে আনছে।  

দিমিত্রি পেসকভ আরো বলেন, এর ফলে একদিকে ইউক্রেন অস্ত্র কিনতে কিনতে ফতুর হচ্ছে, আর অন্যদিকে মার্কিনিরা তাদের অস্ত্র বিক্রি করে ধনী হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ইউক্রেন, ইসরায়েল ও তাইওয়ানকে সামরিক ও নিরাপত্তা সহায়তা দেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে শনিবার বিল পাস হয়েছে।

স্থানীয় সময় শনিবার (২০ এপ্রিল) ভোটাভুটির পর মার্কিন আইনপ্রণেতারা বহুল আলোচিত ৯৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের এই বিল অনুমোদন করেন। মূলত রিপাবলিকান কট্টরপন্থিদের তিক্ত আপত্তির মধ্যেই বিস্তৃত দ্বিদলীয় সমর্থনে এই বিল পাস হয়।

পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে পাসের পর বিলটি এখন ডেমোক্র্যাটিক-সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেটে চলে গেছে। দুই মাসেরও বেশি আগে একই ধরনের একটি ব্যবস্থা পাস করেছিল মার্কিন সিনেট।

এরপর থেকে ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন থেকে শুরু করে শীর্ষ সিনেট রিপাবলিকান মিচ ম্যাককনেল পর্যন্ত মার্কিন নেতারা রিপাবলিকান হাউসের স্পিকার মাইক জনসনকে সহায়তার বিষয়টি নিয়ে ভোটাভুটির আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন।

শনিবার পাস হওয়া ইউক্রেনের জন্য বিলটিতে দেশটিকে ৬০.৮৪ বিলিয়ন ডলারের সামরিক সহায়তা দেয়ার কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে মার্কিন অস্ত্র, মজুত এবং অন্যান্য সুবিধা পুনরায় পূরণ করতে ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দেয়া হবে।

ভোটাভুটিতে বিলটির পক্ষে ভোট পড়ে ৩১১টি। বিপক্ষে ১১২ ভোট পড়ে। ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এই বিল পাস হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন।

অন্যদিকে পাস হওয়া বিলটিতে ইসরায়েলের জন্য ২৬ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা দেয়ার কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে মানবিক প্রয়োজন পূরণে দেশটিকে ৯.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দেবে দেশটি।

এছাড়া এই সহায়তার আওতায় ইসরায়েলকে সামরিক সহায়তার পাশাপাশি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আরও উন্নত করবে ওয়াশিংটন। আর তাইওয়ানসহ ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের জন্য ৮.১২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সহায়তা দেবে জো বাইডেনের প্রশাসন।

এদিকে বিল দুটি বাস্তবায়নে এখন মার্কিন সিনেটের অনুমোদন প্রয়োজন হবে। শিগগিরই তা সিনেটে তোলা হবে। অবশ্য মার্কিন সিনেটে ডেমোক্র্যাটরা সংখ্যাগরিষ্ঠ এবং সেখানে তাদেরকে এই বিল পাস করা নিয়ে খুব বেশি চাপের মুখে পড়তে হবে না