ভাইয়ের রাজনীতি বন্ধ করুন  বলেন: আনোয়ার

86

নারায়ণগঞ্জ প্রথিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, আজকে আমরা জতির জনকের আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়ে শেখ হাসিনার আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়ে আমরা ভুল পথে চলে যাচ্ছি। কেউ এই ভাইয়ের কাছে যাই কেউ ওই ভাইয়ের কাছে যাই৷ কেউ এই ভাইয়ের কথা বলি কেউ ওই ভাইয়ের কথা বলি। আসুন আমরা এই ভাই ভাইয়ের রাজনীতি বাদ দিয়ে এক জায়গায় থেকে আমরা দেশ গঠনে শেখ হাসিনাকে সাহায্য করি। জাতি বাচলেই আমরা বাচব। আজকে আমরা সকলে নিজেকে বাচাতে চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ থাকতে চাই। যারা ঐক্যবদ্ধ সংগঠনকে ভাঙতে চায় তাদের বলব শেখ হাসিনা অনের দূর পথ চলে এখানে এসেছেন৷ আসুন আমরা সকলে দলকে প্রতিষ্ঠা করাট জন্য কাজ করি। শেখ হাসিনা অনেক ভাল কাজ করছে তবে আমাদের কারনে কোথাও কোথাও তা ব্যাহত হয়ে যাচ্ছে

জাতির জনকের জন্ম না হলে জাতির কী হত জানি না। তার জন্ম হয়েছে বলেই আমরা স্বাধীন দেশে রাজনীতি করতে পারছি। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিপুল জয় পেয়ে প্রমান করেছিল বাংলাদেশে শেখ মুজিব অবিসংবাদিত নেতা এবং তার দল আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের অত্যান্ত জনপ্রিয় একটি দল। সেই নির্বাচনের পর যখন পাকিস্তানিরা বাঙালিদের হাতে নেতৃত্ব দিতে চাইছিলনা তখন শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে ভাষণ দিয়েছিল এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। সেদিন যদি বাঙালি জাতি ঐক্যবদ্ধ হতে না পারত তাহলে আর স্বাধীনতার যুদ্ধ হত না বাংলাদেশও আর স্বাধীন হতে পারত না

দীর্ঘ নয় মাস অনেক রক্তের বিনিময়ে আমরা দেশকে স্বাধীন করেছি। আমি সকল শহীদের আত্মার প্রতি আমার শ্রদ্ধা জানাই। প্রিয় ভাইয়েরা আমি জাতির জনকের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখেছিলেন এদেশ হবে দারিদ্র্য মুক্ত, ক্ষুধা মুক্ত দেশ। জাতির জনককে হত্যার মাধ্যমে জিয়াউর রহমান এবং তার দোসররা দেশের অগ্রগতিকে থামিয়ে দিয়েছিল। অনেক আন্দোলনের মাধ্যমে দীর্ঘ ২০ বছর পর বাংলাদেশের জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনা দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন। সেই ধারাবাহিকতায় আজ তিনি বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজকে সমাপ্ত করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা আজকে বাংলাদেশে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। আজকে সেলক্ষ্যে আমাদেরও সকলের প্রতি একই অনুরোধ। চলুন মানুষের কল্যানে কাজ করি মানুষের সেবা করি

আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন। তিনি এই সংগঠনের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। আসুন আমরা সাহস নিয়ে এগিয়ে যাই। আমাদের অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে হবে। আসুন সকল অন্যায় অপপ্রচারের বিরুদ্ধে আমরা রুখে দাড়াই

১৭ মার্চ বাদ আসর মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে কেক কাটা, দোয়া মিলাদ মাহফিলে তিনি একথা বলেন

উপস্থিত ছিলেন, মহানগর আওয়ামীলীগের সহসভাপতি শেখ হায়দার আলী পুতুল, নূরুল ইসলাম চৌধুরি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম আহসান হাবিব সহ নেতৃবৃন্দরা