সোনারগাঁয়ে গণপিটুনিতে ৪ ডাকাত নিহত

39

নুর নবী জনিঃ-নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ের কাচঁপুর ইউপির বাগরী এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গ্রাম বাসীর গনপিটুনিতে ডাকাত দলের চার সদস্য নিহত হয়েছে।

এদের মধ্যে ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এছাড়া আশঙ্কাজনক অবস্থায় ২ জনকে রাতেই হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ ।

এর আগে রোববার মধ্য রাতে উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের বাগরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মুছারচর গ্রামের আমানুল্লাহর ছেলে জাকির (৪০), আড়াইহাজার উপজেলার জাঙ্গালিয়া গ্রামের সামসুল হকের ছেলে আব্দুর রহিম (৪৮), জালাকান্দি গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে নবী হোসেন (৩৫)। এবং আহত হলেন জাঙ্গালিয়া গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে মোহাম্মদ আলী (৪৫)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রোববার রাত একটার দিকে বাগরী গ্রামের বিলে পাড়ে আট থেকে দশ জনের একটি ডাকাত দল ডাকাতির উদ্দেশ্যে প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় স্থানীয় কয়েকজন তাদের দেখতে পেয়ে ছুটে গিয়ে গ্রামবাসীকে খবর দেয়। পরে মসজিদের মাইকে ডাকাত বলে ঘোষণা দিলে গ্রামবাসী তাদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এসময় ডাকাত দলের সদস্যরা পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা ডাকাতদের ধরে গণপিটুনি দিলে ঘটনাস্থলেই ৪জন মারা যায়। 

অন্যরা পালিয়ে বিলে ঝাঁপ দেয়। পরে বিল থেকে উঠিয়ে আরও দুই ডাকাত দলের সদস্যকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।  

স্থানীয়দের দাবি এ গ্রামে একাধিকবার ডাকাতির ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অনেকে। আর এতে গ্রামবাসী ডাকাতদের উপর ক্ষুব্ধ হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খ-সার্কেল শেখ বিল্লাল হোসেন জানান, রাতে নিহত দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সকালে গ্রামের চর থেকে আরও দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতদের মরদেহ নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এবং আহত ডাকাত দলের সদস্যদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জনান তিনি।