সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসী হামলা!!

178

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়নগঞ্জের মাদক ও কিশোর গ্যং নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসী হামলা করা হয়, যা নিয়ে নারায়নগঞ্জ সদর থানায় -থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ সদর থানার জীমখানা এলাকার চিহ্নিত মাদক বানিজ্য পরিচালনা কারি ও উক্ত মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণের জন্য তৈরি কিশোর গ্যং সদস্যদের নিয়ে জাতীয় দৈনিক র্বতমান কথার ক্রাইম রিপোর্টার ও সাপ্তাহিক দপ্তর র্বাতা পত্রিকার নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মোঃ মিঠু আহম্মেদ একটি সংবাদ প্রকাশ করার কারনেই আজ ৩০-৩-২০২৪ইং তারিখে সাপ্তাহিক দপ্তর র্বাতা পত্রিকার আয়োজনে ইফতার মাওফিলের দাওয়াত দেওয়ার জন্য বক্তবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন এর চেয়ারম্যান ভবনে যাওয়ার সময় জীমখানা রেলওয়ে কোয়ার্টার চার নং গলীর সামনে উক্ত সন্ত্রাসীরা আমাকে দেখতে পেয়ে নানা ধরনের অকথ্য ভাষায় গালাগালীর এক পর্যায়ে সাংবাদিক মিঠু প্রতিবাদ করলে মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ ও যোগানদাতা পিচ্ছি মাসুমের নেতৃত্বে কিশোর গ্যং লিডার তানভীর তার পকেটে থাকা সুইজগীয়ার দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আলো ও আলী হোসেনের সহযোগিতায় হামলা চালান ।সে সময় সাংবাদিক মিঠু নিজের জীবন বাচাতে চিৎকার করলে তার চিৎকারে স্থানীয় বাসিন্দারা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী পিচ্ছি মাসুম, তানভীর ও আলী হোসেন হুমকি দিয়ে বলে,” যে হাত দিয়ে আমাদের নামে নিউজ লিখছিলি তোর এই হাত ২৪ঘন্টার মধ্যে কেটে নিয়ে যাব এবং তোর পরিবারের যাকে পাব হত্যা করে শীতলক্ষ্যায় ফেলে মাছ দিয়ে খাওয়াব, লাশটাও খুজে পাবি না।” এমন কথা বলতে বলতে স্থান ত্যাগ করে এবং এদের মহিলা সদস্যরা সে সময় সাংবাদিকের র্শাট ধরে টানাপোড়ন করে বলতে থাকে তোর নামে এখন ধর্ষণের অভিযোগ দিয়ে ও আরও নানা ধরনের ঘটনার কথা বলে আমরাও নিউজ করব, টাকা হলে তোর মতো হাজার সাংবাদিক যা বলমু তাই লিখব এবং মামলা করার কথাও বলে সাংবাদিক মিঠু আহম্মেদ নামে । এখন সাংবাদিক মিঠু আহম্মেদ দাবী করে যে আমি তো তাদের মাদকসহ জাবতীয় অপরাধের সত্য সংবাদ প্রকাশ করেছি এর কারনে এখন আমিসহ আমার পুরা পরিবারের লোকজন এমন সন্ত্রাসীদের হামলা ও বিভিন্ন ধরনের ক্ষতির হুমকির জন্য ভয়ে আতঙ্কিত। তাই অনতিবিলম্বে উপরোক্ত মাদক কারবারি ও তাদের নিয়ন্ত্রণ কৃত কিশোর গ্যং সদস্যদের গ্রেফতার করে উপযুক্ত আইনি উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আহবান করে ভুক্তভোগী সাংবাদিক ও তার নিরীহ পরিবারের সদস্যরা ।

উল্লেখ্য যে গত ৬ ফ্রেব্রুয়ারী স্থানীয়দের মাধ্যমে শুনতে পায় নাসিক ১৭নং ওয়ার্ডের পাইকপাড়া পুল এলাকায় দুইটি গ্রুপ অবস্থান করছে যে কোন সময় বড় ধরনের অপরাধের ঘটনা ঘটতে পারে এমন সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ডিইউটি অফিসার নারায়ণগঞ্জ থানাকে জানিয়ে সংবাদ সংগ্রহের জন্য উক্ত স্থানে গেলে দেখতে পায় কিছু লোক হাতে বড় বড় রামধা নিয়ে জীমখানা খেলার মাঠের দিকে তেরে আসছে এমন ঘটনার এক্সক্লুসিভ নিউজ করার জন্য ভিডিও ধরনের সময় সন্ত্রাসী তানভীর বাহিনীর সদস্যদের হামলার শিকার হতে হয় এবং ৮ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে যার তদন্ত করছে এএসআই সফিউল্লাহ।