অনৈতিক সুবিধা ভোগী এ এস আই এনায়েতের বিরোদ্ধে অভিযোগ

316

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ এ এস আই এনায়েত অনৈতিক সুবিধা পেয়ে ফিটিং কেইসে হেরোইন দিয়ে কোর্টে চালান দিয়েছে বলে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী মজিবর রহমান। ১৮ই ডিসেম্বর সন্ধায় নারায়নগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট এ অভিযোগ দায়ের করেছে।

ভুক্তভোগী মজিবর জানায় গত ১২.১২.১৯ ইং তারিখে সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের সময় নারায়ণগঞ্জ থানার এ এস আই এনায়েত করিম গিয়ে আমার ছেলে জিকু এবং অপারেটর শামীমকে মাদকাসক্তের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে থানায় নিয়ে আসে। আমি নামাজ পড়ে এসে আমার বাসার সামনে অনেক লোকের ভীড় দেখে এবং ঘটনা শুনে হতভম্ব। ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজনের কোণ কথা না শুনে নাটকীয়ভাবে আমার ছেলে ও শামীমকে নিয়ে চলে আসে অনৈতিক সুবিধাভোগী এ এস আই।আমার জানা মতে মাদক ব্যবসাত দুরের কথা আমার ছেলে মাদক স্পর্শও করে না। আমি সন্ধার পর থানায় আসলে আমার নিকট এ এস আই এনায়েত দুই লক্ষ টাকা দাবী করে, টাকা না দিলে ইয়াবা ও হেরোইন দিয়ে চালান দিবে, সাসাইয়া বলে টাকা নিয়ে আসেন। আমি অনেক কষ্টে আমার স্ত্রীর জিনিস বন্ধক রেখে ৩০ হাজার টাকা পরের দিন শুক্রবার ১৩.১২.১৯ ইং তারিখে সকাল ৯টায় সুমনের মাধমে এ এস আইকে দেওয়া হয়। টাকা লেনদেনের ব্যপারে ০১৯১১৬৯৩৯২৫ নাম্বার থেকে যোগাযোগ করা হয়।টাকা দেওয়ার পরও আমার ছেলে ও শামীমকে ১০০ পুড়িয়া হেরোইন দিয়ে চালান দেয়। যে ছেলে মাদক স্পর্শ করে না তাকে মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে কোর্টে পাঠায়। আমি মাদকের বিরোদ্ধে এবং শহীদ নগরকে মাদক মুক্ত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছি। শহীদ নগরকে মদক মুক্ত করার জন্য আমি আমার সংগঠন জাতীয় ভেজাল প্রতিরোধ ফাউন্ডেশন দিয়ে আপনার অফিসে গত ২১.১১.১৯ ইং তারিখে রেফঃ জেভিপিএফ/২০১৯/১১/০১৭ আবেদন করি। অদ্য পর্যন্ত শহীদ নগরের কোন মাদক ব্যবসায়ীর বিরোদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি বরং আমার নিস্পাপ ছেলেকে অনৈতিক শুবিধা পেয়ে ফিটিং কেসে ফাসিয়ে দিয়ে কোর্টে চালান দেয় অসৎ পুলিশ অফিসার এ এস আই এনায়েত করীম। ঘটনার স্বচ্ছ তদন্ত করে অপরাধীকে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থার জন্য পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট দাবী করেন ভুক্তভোগী মজিবর রহমান।