ডাকাতির প্রস্তুতিকালে বন্দুক যুদ্ধে রূপগঞ্জের কুখ্যাত ডাকাত সর্দার ইব্রাহিম নিহত

451

বন্দর প্রতিনিধিঃ বন্দরে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে বন্দুক যুদ্ধে রূপগঞ্জের কুখ্যাত ডাকাত সর্দার ইব্রাহিম(৪০) নিহত হয়েছে। এ সময় পুলিশের ২ কর্মকর্তা ও ১ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা হচ্ছে বন্দর থানা পুলিশের এসআই সাইদুল ইসলাম,এএসআই ইলিয়াস খান ও কনষ্টেবল হারুন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল হতে ৩টি তাজা ককটেল ও বেশ কয়েকটি ছোঁরা উদ্ধার  করেছে।

সোমবার গভীর রাতে থানার ধামগড় ইস্পাহানী এলাকায় মাইনুদ্দিন মিয়ার ঝুটের পোড়া গোডাউনে এ ঘটনাটি ঘটে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল হতে ৩টি তাজা ককটেল ও বেশ কয়েকটি ধারালো ছোরা উদ্ধার করে। পুলিশ নিহত ডাকাত ইব্রাহিমের মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম শাহিন মন্ডল জানান, রূপগঞ্জের ডাকাত সর্দার ইব্রাহিমসহ ১৫/১৬ জনের একটি ডাকাত দল সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে মদনপুর-মদনগঞ্জ সড়কের ধামগড় ইস্পাহানী এলাকার মাঈনুিদ্দন মিয়ার পরিত্যাক্ত ঝুটের গোডাউনে অবস্থান করে ডাকাতির প্রস্তুুতি নিচ্ছিল।

তিনি আরো জানান, নিহত ডাকাত ইব্রাহিম একজন আন্তঃ জিলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। তার বিরুদ্ধে গাইবান্দা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার ৪৮(৮)১৭ ধারা- ৩৯৫/৩৯৭ দঃবিঃ। এছাড়াও নরসিংদী মডেল থানার ১০(২)১৪ ধারা- ৩৯৫/৩৯৭/৪১২ দঃবিঃসহ বিভিন্ন থানায় আরো একাধিক মামলা রয়েছে বলে জনিয়েছে।

খবর পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা তাদরকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে ডাকাত সর্দার ইব্রাহিম গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এ সময় ৩ পুলিশ আহত হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল হতে ৩টি তাজা ককটেল ও বেশ কয়েকটি ছোঁরা উদ্ধার  করে এবং আহতদের ধরাধরি করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে।